‘শুধু জানি যেতে না পারলে চাকরি থাকবে না’ ‘শুধু জানি যেতে না পারলে চাকরি থাকবে না’ – Nagorik Vabna
  1. abusayedm29@gmail.com : Abu Sayed : Abu Sayed
  2. info.nagorikvabna@gmail.com : Rifan Ahmed : Rifan Ahmed
  3. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul Islam : Mohaiminul Islam
  4. nuruddinsheikh001@gmail.com : Nuruddin Sheikh : Nuruddin Sheikh
  5. mdzahidlama@gmail.com : Md Zahid : Md Zahid
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০২ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
দেশব্যাপী প্রচার ও প্রসারের লক্ষে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান info.nagorikvabna@gmail.com অথবা হটলাইন 09602111973-এ ফোন করুন।
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি পুরস্কার মাইলফলক হয়ে থাকবে: কাদের আইসিটি, নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও নীল অর্থনীতিতে মার্কিন বিনিয়োগ আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিদেশে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আর অর্থায়ন করবে না চীন সড়ক দুর্ঘটনায় অভিনেত্রী ও তার প্রেমিক নিহত গৌরীপুরে ইউএনও’র নাম্বার ক্লোন করে টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারক চক্র নতুন করে ৮৯ লাখ ডোজ টিকার বরাদ্দ পেল বাংলাদেশ যশোরে আগাম শীতকালিন সবজিতে বাম্পার ফলন, দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকের মুখে সফলতার হাসি মঠবাড়িয়ায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা,দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ১ ঋতু পরিবর্তনের সময়ে ঠান্ডা সমস্যা বা সর্দি কাশি মুক্তির উপায়? পেকুয়ায় ইউ এন ও’র বিদায় সংবর্ধনা




‘শুধু জানি যেতে না পারলে চাকরি থাকবে না’

  • সর্বশেষ পরিমার্জন : শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

পোশাক কারখানা খোলার ঘোষণায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট দিয়ে ঢাকামুখি মানুষের ঢল নেমেছে। গাদাগাদি আর ভাইরাসের অভয়াশ্রম তৈরি করেই ঘাট পার হচ্ছেন তারা। ঘাটে যানবাহন সংকটে সীমাহীন দুভোর্গ ও অতিরিক্ত ভাড় দিয়ে রাজধানীতে ফিরছেন তারা।

শনিবার (৩১ জুলাই) দৌলতদিয়া থেকে আসা ফেরিগুলোতে তিল ধারনের জায়গা নেই। ‍শুধু মানুষ আর মানুষ। ফেরি ঘাটে ভিড়তেই জনস্রোতে দেখা গেছে। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় যে যেভাবে পারছে চেষ্টা করছে কর্মস্থলে ফিরতে। রোববার (১ আগস্ট) পোশাক কারখানা খোলার ঘোষণায় বাধ্য হয়েই ফিরছেন তারা।

ঢাকার আশুলিয়া যাচ্ছেন সেলিনা বেগম। তিনি জানান, আমাদের পোশাক কারখানা খুলবে তাই ঢাকা যাচ্ছি। তাই কথা বলার সময় নাই। ভাড়া একশ টাকা কিন্তু আজ ৭শ’ টাকা চাচ্ছে, তাও গাড়ি পাচ্ছি না। গাড়ি না পেলে হেঁটেই যেতে হবে।

সেকেন্দার নামে আরেক পোশাক শ্রমিক জানান, গাদাগাদি করে ফেরি পার হয়েছি। গণপরিবহন বন্ধ রেখে কারখানা খোলার সিদ্ধান্ত অযৌক্তিক। আমাদের কষ্টের কথা কেউ ভাবে না। শুধু জানি, যেতে না পারলে চাকরি থাকবে না।

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ার ঘাট ব্যবস্থাপক মো. সালাম মিয়া জানান, এ নৌরুটে যাত্রী বৃদ্ধির কারণে ২টি ফেরি বাড়িয়ে রোস্টারে ছোট বড় ৮টি ফেরি চলাচল করছে।

এর আগে ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেই তৈরি পোশাকসহ সব রপ্তানিমুখী শিল্পকারখানা আগামী রোববার খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে রপ্তানিকারকরা হাফ ছেড়েন। যদিও চলমান বিধিনিষেধে শ্রমিকেরা দূর-দূরান্ত থেকে কীভাবে কর্মস্থলে ফিরবেন তার কোনো নির্দেশনা নেই।

রোববার সকাল ৬টা থেকে পোশাকসহ সব রপ্তানিমুখী শিল্পকারখানাকে বিধিনিষেধের আওতামুক্ত ঘোষণা করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গতকাল শুক্রবার বিকেলে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল ব্যবসায়ী মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন। যত দ্রুত সম্ভব শিল্পকারখানা খুলে দেওয়ার অনুরোধ জানান তারা। ফলে এর একদিন পরই রপ্তানিমুখী সব শিল্পকারখানা খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার।

সবশেষ গত ২৮ জুন শুরু হওয়া সীমিত ও পরে ১ থেকে ১৪ জুলাই কঠোর বিধিনিষেধেও পোশাকসহ অন্যান্য শিল্প কারখানা চালু ছিল। তবে ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়া ১৪ দিনের কঠোরতম বিধিনিষেধে সব ধরনের শিল্প-কারখানা বন্ধ থাকবে। সেই প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে সরকারের সঙ্গে দেন দরবারের নামেন পোশাক ও বস্ত্র খাতের পাঁচ সংগঠনের নেতারা। মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে বৈঠক করে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও দেন তারা। তবে শেষ পর্যন্ত কোনো কিছুই কাজে আসেনি। সরকার নমনীয় হয়নি। ফলে চামড়া, ওষুধ, খাদ্য প্রক্রিয়াজাত শিল্প ছাড়া অধিকাংশ শিল্পকারখানা বন্ধ ছিল।




সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

আরো সংবাদ পড়ুন




নাগরিক ভাবনা লাইব্রেরী

Sat Sun Mon Tue Wed Thu Fri
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930