বাঘায় ক্রিকেট ম্যাচে বাজি,ধ্বংসের মুখে যুবসমাজ বাঘায় ক্রিকেট ম্যাচে বাজি,ধ্বংসের মুখে যুবসমাজ – Nagorik Vabna
  1. info.nagorikvabna@gmail.com : Rifan Ahmed : Rifan Ahmed
  2. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul Islam : Mohaiminul Islam
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:৫০ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
দেশব্যাপী প্রচার ও প্রসারের লক্ষে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান info.nagorikvabna@gmail.com অথবা হটলাইন 09602111973-এ ফোন করুন।




বাঘায় ক্রিকেট ম্যাচে বাজি,ধ্বংসের মুখে যুবসমাজ

  • সর্বশেষ পরিমার্জন : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৩০ বার পড়া হয়েছে

রবিউল ইসলাম বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজধানী ঢাকা সহ প্রতিটি বিভাগীয় ও জেলা শহর গুলোর পাশাপাশি রাজশাহী বাঘা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে “বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ঘরোয়া টি-২০ আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)” আসরকে ঘিরে সক্রিয় হয়ে উঠেছে বাজিকররা।

বোলিং ও ব্যাটিংয়ের আগ মুহূর্তে কোন বলে কী রান হতে পারে, এমন ধারণা নিয়ে চলছে শত থেকে লাখ টাকা বাজি। কোন খেলোয়াড় কত উইকেট নিতে পারে, কোন খেলোয়াড় কত রান করবেন,কে সেঞ্চুরি করবেন এমন সব নিয়ে চলে বাজি।

প্রত্যন্ত অঞ্চলের পাড়া-মহল্লার বিভিন্ন মোড়ের দোকানগুলোতে চলছে জুয়ার বাজি। দলগত হার-জিত নির্ধারণ ছাড়া পাশাপাশি চলছে ওভার বা ‘বল বাই বল’ বাজি।

জানা গেছে, আন্তর্জাতিক অঙ্গনের বাজিকররা মাঠে গিয়ে বাজি ধরেন; কিন্তু আমাদের দেশে এক ধরনের জুয়াড়ি আছেন যারা বাজি ধরেন টিভির স্ক্রিনে খেলা দেখে। একটু ভালোভাবে খেয়াল করলেই দেখা যায়, যখন কোনো ধরনের খেলা চলে বিশেষ করে টি-২০,কিংবা একদিনের ম্যাচ হলে তো কথাই নেই, জটলা বেঁধে যায় মোড়ের ছোট দোকানগুলোতে।

সরেজমিনে দেখা যায়, আইপিএলের একটি খেলা চলাকালে উপজেলার নতুন বাসস্ট্যান্ড, মনিগ্রাম বাজার, পানিকুমড়া বাজার সহ বিভিন্ন বাজারপ একাধিক চায়ের দোকানে গেলে দেখা যায় উপচেপড়া ভিড়। লক্ষ্য করলে বোঝা যায় বাজির দর কষাকষি এবং দেখা যায় টাকা হাতবদলের দৃশ্য। প্রাপ্তবয়স্ক, স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীর পাশাপাশি অনেক রিকশা চালককেও এমন জুয়ায় মাততে দেখা গেছে।

এদিকে শহর ও গ্রামে গড়ে উঠেছে জুয়ার বাজির ডিলার। এ ডিলাররাই মূলত বাজি নিয়ন্ত্রণ করে। বিভিন্ন ম্যাচকে ঘিরে ডিলাররা জুয়ার একটা রেট দিয়ে দেন। ম্যাচটি যদি সমান সমান কোনো দলের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় সে ক্ষেত্রে বাজির দরের হেরফের হবে ২০০ টাকা পর্যন্ত। আর শক্তিশালী দলের সঙ্গে দুর্বল দলের খেলা হলে বাজির দরের হেরফের নিম্নে ৫০০ টাকা থেকে কয়েকগুণ বেশি হয়ে থাকে। ডিলার যত বেশি বেশি ম্যাচের ডিল করে দিতে পারবেন তার লাভের অঙ্কটা তত বেশি। যে সব ডিলার লাখ লাখ টাকা ডিল করেন তাদের আবার থাকে কয়েকজন সাব-ডিলার। এরা মূলত ডিলারের কাছে কয়েকটি ম্যাচের ডিল নিয়ে তা মাঠ পর্যায়ে দিয়ে দেন।

এই বাজিকে কেন্দ্র করে মাঝেমধ্যে ছিনতাই, গুম,খুন এর মত ঘটনা পত্র পত্রিকায় দেখা যায়।
এছাড়াও আইপিএলের মতো জমকালো টি-২০ আসর প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বেট ৩৬৫ নামক হলেও। ‘বেট ৩৬৫’ মূলত ক্রীড়াবিষয়ক একটি আন্তর্জাতিক বেটিং (বাজি ধরার) সাইট, যেখানে বিশ্বের যে কোনো স্থানের ১৮ বছর বা এর বেশি বয়সের যে কেউ যে কোনো খেলা নিয়ে অন্যদের সঙ্গে বাজি ধরতে পারেন। সহজ পথে স্বল্প সময়ে ‘বড়লোক’ হতে গিয়ে অনেকে হারাচ্ছেন সর্বস্ব। ল্যাপটপ, ডেস্কটপ বা মোবাইল দিয়েই এ সাইটে ব্রাউজ করে এই সাইটে ক্রেডিট কার্ড দিয়ে লেনদেন করা হয়।

উল্লেখ, গত বছর আইপিএল চলাকালে ঢাকার বাইরে সৈয়দপুর, ডোমার, নালিতাবাড়ি, ময়মনসিংহসহ বিভিন্ন স্থানে শতাধিক জুয়াড়িকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর আগে বাড্ডায় ক্রিকেট বাজিতে খুন হয়েছে এক যুবক। ২০১৪ সালের ১৩ এপ্রিল ভারতীয় এক জুয়াড়িকে ঢাকায় গ্রেপ্তার করা হয়। আইপিএল খেলা চলাকালে রাস্তার মোড়ের দোকানগুলোতে ভালোভাবে চোখ রাখলেই দেখা যায়, সেখানে চলছে বাজির দর কষাকষি। তবে যারা বাজি ধরে তাদের বেশির ভাগেরই বয়স ১৫ থেকে ২৫ বছর।

এ বিষয়ে উপজেলার প্রবিন খেলোয়াড়েরা বলেন, ভদ্রলোকের খেলা খ্যাত ক্রিকেট খেলাকে কলঙ্কিত করছে কিছু অসাধু ব্যক্তি। সেই সাথে দেশের যুব সমাজকে ও নষ্ট করছে এই অসাধু ব্যক্তিরা। সেই সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন ক্রিয়াপ্রেমী ব্যাক্তিরা।




সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

আরো সংবাদ পড়ুন




নাগরিক ভাবনা লাইব্রেরী

Sat Sun Mon Tue Wed Thu Fri
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031