শ্রীপুরে হিটস্ট্রোকে বোরো আবাদ ক্ষতিগ্রস্ত শ্রীপুরে হিটস্ট্রোকে বোরো আবাদ ক্ষতিগ্রস্ত – Nagorik Vabna
  1. info.nagorikvabna@gmail.com : Rifan Ahmed : Rifan Ahmed
  2. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul Islam : Mohaiminul Islam
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১১:০৬ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
দেশব্যাপী প্রচার ও প্রসারের লক্ষে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান info.nagorikvabna@gmail.com অথবা হটলাইন 09602111973-এ ফোন করুন।




শ্রীপুরে হিটস্ট্রোকে বোরো আবাদ ক্ষতিগ্রস্ত

  • সর্বশেষ পরিমার্জন : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

শ্রীপুর(গাজীপুর)প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুরে বোরো আবাদে ধানের পরিবর্তে জমিতে চিটা বের হচ্ছে। চাষীরা অভিযোগ করেছেন সপ্তাহখানেক আগে বেশিরভাগ বোরো জমিতে এরকম পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। উৎপাদন খরচ উঠাতে পারবেন না বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকে। চাষীদের কেউ কেউ ক্ষতিপূরণ চেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদনও করছেন।

বিরূপ জলবায়ুর কারণে হিটস্ট্রোক হওয়ায় এমনটি দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষি বিভাগ। কৃষি কর্মকর্তারা দাবী করেছেন এতে ক্ষয়-ক্ষতি খুব বেশি হবে না। পরিস্থিতি মোকাবিলায় জমিতে এ মুহুর্তে তিন ইঞ্চি পরিমান পানি সংরক্ষনের পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) থেকে বীজ সংগ্রহ করে আবাদ করেন গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার সোনাকর গ্রামের মো. কাজী আলম। তিনি বলেন, এবছর ১০ একর জমিতে বোরো আবাদ করেন। বোরো থেকে উৎপাদিত ধান “বীজ” হিসেবে কর্পোরেশনকে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত রোববার থেকে তার জমিতে ধানের পরিবর্তে চিটা বের হচ্ছে। প্রতি একরে বোরো আবাদে ৩৩ হাজার টাকার মতো খরচ হয়েছে। খরচের অর্ধেক টাকাও উঠাতে পারবেন না বলে জানান তিনি। তাছাড়া এ ধান গাছ মাড়াইয়ের পর গবাদি পশু খেতে চাইবে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

একই গ্রামের কৃষক আব্দুল হালিম বলেন, ধানগুলো চিটা হয়ে বের হচ্ছে। যে আশা নিয়ে বোরো চাষ করেছিলাম তার আর পূর্ণ হলো না। ধান মাড়াইয়ের মুজুরীর টাকাও ঋণ করে নিতে হবে। কৃষি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, হিটস্ট্রোকে ধানের এমন ক্ষতি হয়েছে।

চাষী একাব্বর আলী বলেন, ১’শ ৪০ শতক জমিতে বোরো আবাদ করেন। কিন্তু তার জমির বেশিরভাগ ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। কৃষি কাজ করেই তার জীবিকা নির্বাহ হয়। এ অবস্থায় তিনি স্থানীয় সাংসদসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে ক্ষতিপূরণ চেয়ে আবেদন করেছেন বলে জানিয়েছেন।

শ্রীপুর উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, এ বছর উপজেলায় ১ হাজার ২’শ ৫৫ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছে। বিরূপ আবহাওয়ার কারণে হিটস্ট্রোকে ৭৫ হেক্টর জমির আবাদ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সমস্যা সমাধানে দ্রুত পরামর্শ বাস্তবায়নের তাগিদ দিয়ে গাজীপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো. মাহবুব আলম জানান, এ অবস্থায় জমিতে তিন ইঞ্চি পরিমাণ পানি জমা করে রাখতে পারলে বাকী ফসল ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করা যাবে। অতি তাপমাত্রার কারণে বোরো ফলনে এমনটি হয়েছে। এটি জেলার প্রায় সকল এলাকাতেই হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। ৩৫ ডিগ্রী সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রার ফলে ফুলের রেণু নষ্ট হয়, পরাগায়ন হয় না। তবে কৃষি বিভাগের লোকজন মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের এসব পরামর্শ দিচ্ছেন।




সংবাদটি শেয়ার করুন

Comments are closed.

আরো সংবাদ পড়ুন




নাগরিক ভাবনা লাইব্রেরী

Sat Sun Mon Tue Wed Thu Fri
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031