1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

ফাইনালে হারের পর কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন রোহিত-কোহলি

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৬৫ বার পঠিত

ওয়ানডে বিশ্বকাপের ত্রয়োদশ আসর শেষ হয়েছে এগোরো দিন হতে চলল। তবে সদ্য সমাপ্ত আসরটির ফাইনাল ঘিরে আলোচনা যেন থামছেই না। টানা দশ ম্যাচ জিতে এক যুগ পর আবারও শিরোপার আশায় ছিল ভারত। গত ১৯ নভেম্বরের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে সেই স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে।

ট্রফি হাতছাড়া হওয়ার পরে ভারতীয় দলের অনেক সদস্যই মুখ খুলেছেন। কিন্তু দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দুই সদস্য-রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি এখনও তারা চুপ। মেগা টুর্নামেন্ট নিয়ে একটা শব্দও বলতে শোনা যায়নি তাদের মুখে। অবশেষে জানা গেল, ফাইনাল হারের পর তাদের মনের অবস্থা কীরকম ছিল। অস্ট্রেলিয়ার কাছে বিশ্বকাপ হারের পর রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি কী করেছিলেন, এবার জানা গেল সেই খবর।

ইউটিউবে একটি সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় ভারতীয় ড্রেসিংরুমের পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুলেছেন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তারকা এই স্পিনার জানান, ‘ফাইনালে হেরে সবাই ভেঙে পড়েছিলাম। আমাদের সামনেই কেঁদে ফেলেছিল রোহিত আর কোহলি। ওদের দেখে আরও বেশি করে খারাপ লাগছিল। কিন্তু কারোরই কিছু করার ছিল না। আমাদের দলটা অনেক অভিজ্ঞ ছিল। প্রত্যেকে জানত কী করতে হবে। সবাই পেশাদার ক্রিকেটার ছিল। নিজেদের রুটিন, ওয়ার্ম-আপ সম্পর্কে জানত। দু’জনেই জাত নেতা। দলের মধ্যে একটা অন্য রকম পরিবেশ তৈরি করেছিল ওরা। তারপরেও আবেগ ধরে রাখতে পারেনি।’

কোহলি ও রোহিত- দুজনকে দক্ষ অধিনায়ক বলে অভিহিত করেন অশ্বিন। বলেন, ‘ওরা দুজন অসাধারণ অধিনায়ক। ওদের হাত ধরেই ড্রেসিংরুমে একটা সুন্দর পরিবেশ তৈরি হয়েছিল।’বিশ্বকাপে দারুণ প্রশংসিত হয়েছে রোহিতের অধিনায়কত্ব। একই সুর শোনা গেল অশ্বিনের মুখেও।

তার মতে, ‘ভারতের সেরা অধিনায়কদের মধ্যে প্রথমেই এম এস ধোনির নাম উঠে আসে। তবে রোহিতও অসাধারণ অধিনায়ক। দলের সবার পছন্দ-অপছন্দ জানে ও। প্রত্যেক খেলোয়াড়কে ব্যক্তিগতভাবে চেনে রোহিত। না ঘুমিয়েও টিম মিটিংয়ে যোগ দিত রোহিত, যেন দলের সবাইকে ম্যাচের রণকৌশল বোঝাতে পারে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...