1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪১ অপরাহ্ন
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

পুরান ঢাকায় যুবলীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, আহত ৫

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ১১৭ বার পঠিত

জবি প্রতিনিধি: তুচ্ছ ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের সঙ্গে মহানগর যুবলীগের নেতাকর্মীদের হাতাহাতি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।

তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলে জানিয়েছেন ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস. এম আকতার হোসাইন।

বুধবার (০১/১১/২৩) দুপুর দেড়টার দিকে পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে জবি ছাত্রলীগের চারজন কর্মী ও মহানগর যুবলীগের এক কর্মী আহত হন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাহাদুর শাহ পার্কে যুবলীগের শান্তি সমাবেশে চলছিল। এ সময় পার্কের ক্যাফেটেরিয়ায় যুবলীগের কর্মীদের সঙ্গে জবি ছাত্রলীগ কর্মীর কথা কাটাকাটি হয়। এর জেরে যুবলীগ কর্মীদের ধাওয়া দেয় ছাত্রলীগের কর্মীরা।

এ সময় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীদের হাতাহাতি হয়। পরে ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করতে আসলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের পাঁচ জন আহত হয়। এ সময় সমাবেশের চেয়ারে ভাঙচুর করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

পরে জবি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. ইব্রাহীম ফরাজি ও সাধারণ সম্পাদক এস এম আকতার হোসাইন এসে তাদের ক্যাম্পানে ফিরিয়ে নিয়ে যান।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত মহানগর দক্ষিণের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি রমজান বলেন, ‘তুচ্ছ একটা ঘটনাকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ অতিরঞ্জিত করেছে। সেজন্য ঝামেলা হয়েছে।’

এ বিষয়ে জবি ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহীম ফরাজি বলেন, ‘এখানে কোনো ঝামেলা হয়নি। ছোট একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। পরে আমরা কুশল বিনিময় করে চলে এসেছি।’

ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস. এম আকতার হোসাইন বলেন, ‘আমরা স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি মনে করে সেখানে গিয়েছিলাম। যাওয়ার পর দেখি যুবলীগের বড় ভাইয়েরা সমাবেশ করছেন। এরপর সেখান থেকে চলে আসি। কোনো ঝামেলা হয়নি। আর কেউ আহতও হয়নি।’

এদিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীনুর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় যুবলীগ ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মধ্যে সামান্য ঝামেলা হয়েছে। সেটি মিটমাট হয়ে গেছে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X