1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৬:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন সাংবাদিককে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে জীবননগরে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা মাগুরার শ্রীপুরে আ’লীগের দু-গ্রুপের সংঘর্ষে বাড়িঘর ভাঙচুর-লুটপাট, আহত ১০, আটক দুই ঝিনাইদহে কোটা বিরোধী আন্দোলনের শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলায় আহত ১০ আরইআরএমপি প্রকল্পের নারীদের সঞ্চিত অর্থের চেক ও সনদপত্র বিতরণ দেবহাটায় সুদমুক্ত ঋনের চেক, হুইল চেয়ার ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বন্যার পানিতে ভেসে এলো সিকিমের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর লাশ চুয়েট বাসে দুর্বৃত্তদের হামলা
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

কটিয়াদীতে শিশু নির্যাতনকারী সেই পাষন্ড বাবা গ্রেপ্তার

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বুধবার, ৩১ মে, ২০২৩
  • ১৭৪ বার পঠিত

নাঈম ইসলাম: কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে আলোচিত নিজ সন্তানকে নির্যাতনের ঘটনায় পিতা ইকবালকে আটক করেছে পুলিশ। উপজেলার মসূয়া ইউনিয়নের পাশ্ববর্তী উপজেলা পাকুন্দিয়ার ফুলদি এলাকা থেকে পুলিশের একটি অভিযানিক টিম তাকে আটক করে।

বুধবার (৩১ মে) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে তাকে আটক করেছে কটিয়াদী মডেল থানার পুলিশ। ইকবাল পৌর এলাকার শিমুলতলী বাগরাইট মহল্লার নাজিম উদ্দীনের ছেলে।

উল্লেখ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়া সেই১ মিনিট ০৫ সেকেন্ড ভিডিওর মধ্যে প্রথম ২ সেকেন্ডেই শোনা যায় “ঘাতক (বাবা) ইকবাল” তার নিজের মোবাইল ফোনটি নিজেই ভিডিও ধারণ করে কাউকে বলছে এভাবে ধরে রেকর্ড কর।

এরপর ভিডিওর অর্ধেক অংশে দেখা যাচ্ছে বাচ্চা মেয়েটি (টুম্পা)র আত্মচিৎকার।কিন্তু এরপরও ঘাতক বাবা নামের ইকবাল কিছুতেই তার মেয়ে (টুম্পা)কে ছাড়ছেই না।

এক পর্যায়ে দেখা গেলো ঘাতক বাবা ইকবাল তার পা দিয়ে বাচ্চা মেয়েটি (টুম্পার) মুখ চেপে-ধরে-মেরে ফেলার চেষ্টা করতেছে।এরপর এক নারী দৌড়ে এসে সেই ঘাতকের হাত থেকে প্রাণে রক্ষা করে।

পুলিশ সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা সূত্র জানায়, অভিযানের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে ইকবাল ঘনঘন তার অবস্থান পরিবর্তন করে। মুঠোফোন বন্ধ রাখে। দুরে কোথাও পালানোর চেষ্টা করছিলো। ফলে কিছুটা বিলম্ব হয় আটক করতে। শেষমেশ পুলিশের কৌশলের জালে সে আটক হয়।

কটিয়াদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি এসএম শাহাদাত হোসেন বলেন, পুলিশ সুপারের মাধ্যমে ভিডিওটি পাই। সাথে সাথেই পুলিশ তৎপর ছিলো। গভীর রাতে তাকে পুলিশের বিশেষ একটি টিমের হাতে আটক হয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X