1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
‘সমাজের জন্য এক মিনিট সময় ব্যয়’ প্রজেক্টের আওতায় গ্রুপ কাউন্সেলিং মাদারীপুরে জেলা ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যবুককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩ সাঁথিয়ায় ছাত্রলীগ নেতার কাঁটাতারের বেড়ায় অবরুদ্ধ তিনটি পরিবার, পুলিশ হস্তক্ষেপে অপসারণ কিশোরীর মৃত দেহ উদ্ধার মহেশপুর এ শিক্ষক, শিক্ষার্থী, পাঠক মতবিনিময় সভা ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত যশোরের মণিরামপুরে বিপুল পরিমান জাল ব্যান্ডরোলসহ তিনজন গ্রেপ্তার মহিমাগঞ্জ বসত বাড়ির জায়গা নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব মারপিটে যখম ও আহত ২ আশাশুনির বিছট স্কুলের সামনে ফাটল সোনাগাজীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তান কমান্ডের সাথে  উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী লিপটন’র মতবিনিময় অনুষ্টিত  




পরীক্ষায় কম নম্বর পেয়ে ছোট বোনকে অপহরণ, কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: শনিবার, ২০ মে, ২০২৩
  • ১০২ বার পঠিত

পরীক্ষায় কম নম্বর পাওয়ায় ছোট বোনকে অপহরণের পর বাবা-মার কাছে এক কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে এক কিশোরী। শুক্রবার কলকাতার বাঁশদ্রোণীতে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জানায়, মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল দেখতে স্কুটি নিয়ে সাইবার ক্যাফেতে গিয়েছিল ওই ছাত্রী। সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিল ৬ বছরের বোনকে। কিন্তু সকাল গড়িয়ে দুপুর হলেও দুই মেয়ে ঘরে না ফেরায় চিন্তায় পড়ে যায় পরিবার। ঠিক সেই সময় ছাত্রীর বাবার ফোনে একটি মেসেজ ঢোকে। সেখানে লেখা ছোট মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে। মেয়েকে ফেরত পেতে হলে দিতে হবে এক কোটি টাকা। মেয়ের ফোন থেকে এমন মেসেজ পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন ওই ব্যক্তি। শেষে নদিয়ার কৃষ্ণনগর থেকে ছাত্রীসহ তার বোনকে উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ জনায়, মাধ্যমিকে কম নম্বর পাওয়ায় ছোট বোনকে নিয়ে পালিয়ে যায় বাঁশদ্রোণীর ওই ছাত্রী। এর পর ছোট বোনকে অপহরণের নাটক ফাঁদে সে। বাবার ফোনে মেসেজ করে জানায় এক কোটি টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। তবেই ছাড়া হবে। অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে কলকাতা পুলিশ। ওই ছাত্রীর মোবাইল ফোন ট্র্যাক করা শুরু হয়। ছাত্রীর স্কুটিটি পাওয়া যায় একটি মেট্রো স্টেশনের সামনে। খোঁজ নিয়ে পুলিশ জানতে পারে শিয়ালদহ থেকে ট্রেনে করে কৃষ্ণনগর গিয়েছে দুটি মেয়ে। শেষে শুক্রবার বিকেল নাগাদ কৃষ্ণনগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের সামনে থেকে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ।

ছাত্রীর পরিবার সূত্রে খবর, পরীক্ষার পর বড় মুখ করে মেয়ে বাড়িতে বলেছিল অন্তত দুটো বিষয়ে লেটার নম্বর পাবে। মোটের উপর পরীক্ষা ভালো হয়েছে। কিন্তু ফল বেরোতে দেখা যায় ৩১ শতাংশ নম্বর পেয়েছে সে। তাই লজ্জা পেয়ে বোনকে নিয়ে পালিয়ে যায় সে। পরে অপহরণের নাটক করে।

পুলিশ সূত্র জানায়, দুই জনকে উদ্দেশ্যহীন ভাবে ঘুরতে দেখে কৃষ্ণনগর পুলিশের সন্দেহ হয়। তারা কলকাতা পুলিশের পাঠানো ছবি দেখে দুই নাবালিকাকে শনাক্ত করে। তাদের নিয়ে যাওয়া হয় থানায়। পরে বাঁশদ্রোণী থানা থেকে পুলিশের একটি দল ছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কৃষ্ণনগর যায়।

সূত্র : আনন্দবাজার



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...