1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
‘সমাজের জন্য এক মিনিট সময় ব্যয়’ প্রজেক্টের আওতায় গ্রুপ কাউন্সেলিং মাদারীপুরে জেলা ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যবুককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩ সাঁথিয়ায় ছাত্রলীগ নেতার কাঁটাতারের বেড়ায় অবরুদ্ধ তিনটি পরিবার, পুলিশ হস্তক্ষেপে অপসারণ কিশোরীর মৃত দেহ উদ্ধার মহেশপুর এ শিক্ষক, শিক্ষার্থী, পাঠক মতবিনিময় সভা ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত যশোরের মণিরামপুরে বিপুল পরিমান জাল ব্যান্ডরোলসহ তিনজন গ্রেপ্তার মহিমাগঞ্জ বসত বাড়ির জায়গা নিয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব মারপিটে যখম ও আহত ২ আশাশুনির বিছট স্কুলের সামনে ফাটল সোনাগাজীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তান কমান্ডের সাথে  উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী লিপটন’র মতবিনিময় অনুষ্টিত  




গঙ্গাচড়ায় সাংবাদিকের উপর হামলা, গ্রেফতার ২

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৫৮ বার পঠিত

সরকার সালাহউদ্দিন সুমন: রংপুরের গঙ্গাচড়ায় পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় এশিয়ান টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান বাদশাহ ওসমানী, সেন্ট্রালনিউজ বাংলাদেশের স্টাফ রিপোর্টার একেএম সুমনসহ চার সাংবাদিক হামলার শিকার হয়েছেন। এসময় বেধড়ক মারধর করে আহত করার পাশাপাশি ক্যামেরা ভাঙচুর, লাইভ ডিভাইস ও ওয়্যারলেস মাইক্রোফোন ছিনিয়ে নিয়েছে হামলাকারীরা।

এশিয়ান টেলিভিশনের ক্যামেরপার্সন আরিফুল ইসলাম ও সেন্ট্রাল নিউজ বাংলাদেশের ক্যামেরাপার্সন রাকিবুল ইসলাম। গত বুধবার বিকেলে গঙ্গাচড়া উপজেলার লক্ষ্মীটারী ইউনিয়নের চল্লিশ সাল চর সংলগ্ন এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। বর্তমানে গুরুত্বর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এশিয়ান টেলিভিশনের বিভাগীয় প্রধান বাদশাহ ওসমানী। আহত অন্য সাংবাদিকরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। বাদশাহ ওসমানী, একেএম সুমন, আরিফুল ইসলাম।

এ ঘটনায় হামলাকারী লুলু মিয়া ও তার ছেলে রাজু মিয়াসহ অজ্ঞাত আরও ১০-১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হলে রাতেই মুল হোতাকে আটক করে গঙ্গাচড়া থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামিকে সকালে কোর্টে সোপর্দ করার পর দুলাল মিয়া নামে আরো এক হামলাকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গঙ্গাচড়া মডেল থানা ওসি দুলাল হোসেন বলেন, ঘটনার দিন বিকেল গঙ্গাচড়া উপজেলার মহিপুরের তিস্তা নদীর চরে চাষ হওয়া ভুট্টার ফলনের সচিত্র প্রতিবেদনের তথ্য সংগ্রহে গিয়ে ভিডিও ধারণের সময় চল্লিশ সাল চর সংলগ্ন এলাকায় এলাকার লুলু মিয়া ও তার ছেলে রাজুসহ পেছন থেকে অতর্কিত হামলা চালায় সাংবাদিকদের উপর।

হামলার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পেলে নিন্দার ঝড় ওঠে। বিভিন্নগণ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আসতে থাকে নানা তথ্য।

সার্কেলের দ্বায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হোসাইন মুহাম্মদ রায়হান বলছেন, ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়াও বাকীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠণের নেতারা। একই সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি দাবিও করেন তারা।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...