1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৮:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন সাংবাদিককে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে জীবননগরে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা মাগুরার শ্রীপুরে আ’লীগের দু-গ্রুপের সংঘর্ষে বাড়িঘর ভাঙচুর-লুটপাট, আহত ১০, আটক দুই ঝিনাইদহে কোটা বিরোধী আন্দোলনের শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলায় আহত ১০ আরইআরএমপি প্রকল্পের নারীদের সঞ্চিত অর্থের চেক ও সনদপত্র বিতরণ দেবহাটায় সুদমুক্ত ঋনের চেক, হুইল চেয়ার ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বন্যার পানিতে ভেসে এলো সিকিমের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর লাশ চুয়েট বাসে দুর্বৃত্তদের হামলা
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

সাঁতার শিখতে পাঠিয়ে ছেলেকে এভাবে হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন পিতা মাতা

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১১১ বার পঠিত

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: সাঁতার জানত না বলে বাবা-মায়ের অনুমতি নিয়ে বাড়ির পাশের কীর্তিনাশা নদীতে বন্ধুদের সঙ্গে সাঁতার শিখতে যায় আবিদ হাসান (৮)। বন্ধুরা কিছুক্ষণ আবিদকে সাঁতার শিখিয়ে উপরে বসিয়ে রেখে খেলতে চলে যায়। এরপর ফিরে এসে আবিদকে না পেয়ে তারা বাড়ি চলে যায়।

পরে ২৪ ঘণ্টা খোঁজাখুঁজির পর মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) বেলা ১২টার দিকে মাদারীপুরের আড়িয়াল খাঁ নদীর তিনডার মুখ এলাকায় আবিদের মরদেহ পাওয়া যায়।

আবিদ হাসান শরীয়তপুর সদর উপজেলার আংগারিয়া দাঁদপুর গ্রামের মফিজুর রহমান শিকদারের ছেলে।

আংগারিয়া ওসমানিয়া কওমি মাদরাসা নূরানী বিভাগের শিক্ষার্থী আবিদ হাসানের বাবা মফিজুর শিকদারের স্বপ্ন ছিল ছেলেকে কোরআনের হাফেজ বানাবেন। কিন্তু সাঁতার শিখতে পাঠিয়ে ছেলেকে এভাবে হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন তিনি।

মো. নাইম ইসলাম নামে একজন জানান, আবিদ বন্ধুদের সঙ্গে সাঁতার শিখতে কীর্তিনাশা নদীতে গিয়েছিল। কিছুক্ষণ সাঁতার শিখিয়ে বন্ধুরা তাকে নদীর পাড়ে রেখে একটি জাহাজের ঢেউয়ে আনন্দ করতে মাঝ নদীতে চলে যায়। বন্ধুরা উপরে উঠে এসে আবিদকে দেখতে না পেয়ে মনে করেছিল সে বাড়ি চলে গেছে। কিন্তু বাড়িতে তাকে না পেয়ে স্বজন ও বন্ধুরা খোঁজাখুঁজি করেও আর পায়নি। আজ দুপুরে আড়িয়াল খাঁ নদীর তিনডার মুখ এলাকায় আবিদের মরদেহ পাওয়া গেছে।

আবিদ হাসানের বাবা মফিজুর রহমান শিকদার নাগরিক ভাবনাকে বলেন, অনেক স্বপ্ন ছিল ছেলেকে হাফেজ বানাব। কষ্ট করে আবিদকে মাদরাসায় ভর্তি করেছিলাম। অল্প দিনে আবিদ অনেক দূর এগিয়েছিল পড়াশোনায়। আমার সব শেষ হয়ে গেল। আমার আর কিছু রইল না।

আংগারিয়া ওসমানিয়া কওমি মাদরাসার মুহতামিম আবু বকর নাগরিক ভাবনাকে বলেন, আবিদ হাসান গতকাল পরীক্ষা দিয়ে বাড়িতে যাওয়ার পর নদীতে সাঁতার শিখতে গিয়ে নিঁখোজ ছিল। আজ তার মরদেহ পাওয়া গেছে। আবিদ শিক্ষার্থী হিসেবে খুবই ভালো ছিল। অল্পদিনে নূরানী বিভাগের সব বিষয় আত্মস্থ করেছিল।

শরীয়তপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ সেলিম মিয়া নাগরিক ভাবনাকে বলেন, গতকাল দুপুরে খবর পাওয়ার পর শরীয়তপুর ও মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যৌথভাবে নদীতে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করেও আবিদ হাসানের কোনো খোঁজ পায়নি। উদ্ধারের সময় মাদারীপুরের ডুবুরি দলও ছিল। শুনেছি আজ দুপুরে আড়িয়াল খাঁ নদীতে আবিদের মরদেহ পাওয়া গেছে।

পালং মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন নাগরিক ভাবনাকে বলেন, আমরা এ বিষয়ে কিছুই জানি না। ঘটনাটি দুঃখজনক।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X