1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৪:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বন্যার কবলে শিক্ষার্থীদের পাঠদানে ব্যাঘাত রূপগঞ্জে ডাঃ রাশিদুন নবী খান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দেড় শতাধিক বৃক্ষরোপন   শেখ হাসিনা হচ্ছেন উন্নয়নের জাদুকর : শ ম রেজাউল করিম এমপি কুবিতে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ মিছিল ও ছাত্র আন্দোলন চত্বর ঘোষণা কোটা আন্দোলনকারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ কুবিতে নৃবিজ্ঞান বিভাগের জহুরা মিমের সমর্থনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন কনস্টেবল নিয়োগে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে সাবেক এসপিসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে দুদকের চার্জশিট দাখিল শেখ হাসিনা হচ্ছেন উন্নয়নের জাদুকর – শ ম রেজাউল করিম এমপি বাগমারায় অনলাইন জুয়ার কালো থাবায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণ-যুব সমাজ পঞ্চগড়ে কৃষি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাৎ দুদকের অভিযান
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

ফসলি মাঠে সূর্যমুখীর হাসি

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০২৩
  • ২২৫ বার পঠিত
সুলতান কবির, টাঙ্গাইল: সূর্যমুখীর হাসিতে হাসছে গ্রাম-বাংলার ফসলি মাঠ। আর ভোর হলেই মিষ্টি সোনা রোদে চোখ মেলে সূর্যমুখী ফুলগুলো। ভোরের সূয্যি মামার সঙ্গে সূর্যমুখীর বাগানও সূর্যের হাসিতে জেগে উঠে। সবুজ পাতার আড়ালে মুখ উচু করে আছে সূর্যমুখী। দেখতে কিছুটা সূর্যের মতো। সূর্যের দিকে মুখ করে থাকে বলে তাই এ ফুলের নাম সূর্যমুখী। এছাড়াও সূর্যমুখীর বাগানে প্রায় প্রতিদিন বসে প্রজাপতি আর মৌমাছির মেলা। নয়ন জুড়ানো এ দৃশ্য মোহিত করছে মানুষকে।
সূর্যমুখীর দেখতে যেমন অদ্ভুত আকষর্ণীয়, তেমনি রয়েছে অনেক গুণাগুণ। তাই সরকারের প্রণোদনায় চাষ হয়েছে তেলজাতীয় ফসল এই সূর্যমুখী। আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। এবার সূর্যমুখীর ফলনও ভালো হয়েছে। এতে খুশি কৃষকও। তাছাড়া বর্তমানে আকাঁশ তেলের দাম বৃদ্ধিতে ভোজ্য তেলের চাহিদাও পূরণ করবে। তাই কম খরচে বেশি লাভের আশায় সূর্যমুখী চাষ করছেন।
টাঙ্গাইল জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর জেলার ১২ টি উপজেলায়  ২৩০ হেক্টর জমিতে চাষিরা সূর্যমুখীর চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আরও ১৭ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে সূর্যমুখী। এনিয়ে মোট ২৪২ হেক্টর পরিত্যক্ত, অনবাদিসহ বিভিন্ন জমিতে সূর্যমুখী চাষাবাদ করা হয়েছে।
জেলার ১২ টি উপজেলার মধ্যে- টাঙ্গাইল সদরে ৪৫ হেক্টর, বাসাইলে ৩৫ হেক্টর, কালিহাতী ২০ হেক্টর, ঘাটাইলে ১৫ হেক্টর, নাগরপুরে ১৫ হেক্টর, মির্জাপুরে ১৫ হেক্টর, মধুপুরে ২০ হেক্টর, ভূঞাপুরে ২০ হেক্টর, গোপালপুরে ১২ হেক্টর, সখীপুরে ১৫ হেক্টর, দেলদুয়ারে ১৫ হেক্টর ও ধনবাড়ীতে ১৫ হেক্টর। এরমধ্যে সদর ও বাসাইলে সূর্যমুখী ফুলের আবাদ বেশি হয়েছে।
বাসাইল উপজেলার কাঞ্চনপুর দক্ষিন পাড়ার কৃষক সোহরাব মিয়া বলেন –আমি দীর্ঘ ১২ বছর সৌদি আরব ছিলাম আমি সেখানে ফুলের বাগানে কাজ করেছি । আমি ইউটিউব দেখে ফুলের আবাদ করার জন্য আগ্রহী হই । পরবর্তীতে বাসাইল উপজেলার কৃষি অফিসার সীমা আক্তারের পরামর্শে ও সহযোগিতায়, প্রথমে ২৫ ডিসিমাল জায়গার মধ্যে সূর্যমূখি আবাদ করি । এক পাকি জমিতে সরিষা আবাদ কম হয় । কিন্তু সূর্যমুখি চার গুন আবাদ বেশি হয় । এজন্য এবার ৫০ ডিসিমাল জায়গায় সূর্যমূখি আবাদ করেছি । আমার দেখাদেখি অনেক কৃষক সূর্যমূখী চাষে আগ্রহী হচ্ছে।
বাসাইল উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউয়িন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.শামীম আল মামুন বলেন –সূর্যমুখী সাকসেসফুল আবাদ কৃষকের ক্ষেত্রে ৫০ ডিসিমাল জায়গায় সরিষার আবাদ করলে হয়তো ১২ থেকে ১৫ মন সরিষা পাওয়া যায় যার আনুমানিক মুল্য ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা আর  সূর্যমুখী আবাদ করলে বীজ পাওয়া যাবে ১৫ থেকে ১৬ মন  যার আনুমানিক সর্বনি¯œ বাজার মূল্য প্রায় ৭৫ হাজার টাকা । সূর্যমূখি তেল স্বাস্থ্যসম্মত । আমাদের দেশে যে সয়াবিন তেল ও সরিয়ার তেল বিভিন্ন কোম্পানি মার্কেটে বাজারজাত করে সেটা স্বাস্থ্যসম্মত না ।সুর্যমুখি তেল ভাঙ্গাইয়া যে তেল পাওয়া যায এটি স্বাস্থ্যসম্মত । আমি কৃৃষক মানুষের সন্তান ।আমি আশা করছি আগামতেী এর চাষ বাড়বে যেহেতু  এটি লাভজনক । ১২ ডিসিমাল জমিতে আমি আবাদ করেছি এ বছর। আগামীতে ব্যাপক ভাবে এর চাষ করবো ।
টাঙ্গাইল পৌরসভার ৩নংওয়ার্ড কাগমারার সাকোঁ সেবামুলক সংগঠনের চেয়ারম্যান মো. সাদ্দাম হোসেন বলেন – উপজেলা কৃষি অফিসের সার্বিক পরামর্শ ও সহযোগিতায় র্সুর্যমুখী প্রকল্প শুরু করেছি । বাংলাদেশের সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার যে প্রত্যয় আমরা  এর অংশিদার হিসাবে আমরা সুর্যমুখি প্রকল্পের কাজ শুরু করেছি । আমরা উপজেলা অফিস থেকে এক একর জমির জন্য ৫ কেজি বীজ ও ১৫০ কেজি সার পেয়েছি প্রণোদনায় আওতায় । এক একর জমি চাষ করতে খরচ হয়েছে সর্বমোট ত্রিশ হাজার টাকা । একটি ফসল উঠতে সময় লাগে ৩ খেকে ৪ মাস । আশা করছি চার মাস পরে সকল খরচ বাদ দিয়ে এক থেকে দেড় লক্ষ টাকা লাভ থাকবে ।
সদর উপজেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রুমানা আক্তার বলেন, সূর্যমুখি তেল কোলেস্টেরল মুক্ত, সুর্যমুখি তেল খেলে আমাদের হার্ট এ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে । টাঙ্গাইল সদর উপজেলায় ১২টি ইউয়নে ১টি পৌরসভায় ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে প্রনোদনায় আওতায় ৭৫ জন কৃষককে ১ কেজি করে সুর্যমুখী বীজ সহায়তা  দেওয়া হয়েছে । টাঙ্গাইল সদরে সুর্যমূখীর বাম্পার ফলন হয়েছে । এতে করে কৃষিমন্ত্রীর ১৫ তেল আবাদ বুদ্ধির যে পরিকল্পনা ছিল সূর্যমুখীর আবাদ বৃদ্ধির ফলে এ পরিকল্পনা সরিষার সাথে সাথে তেল জাতীয় ফসলের আবাদ ১৫% বৃদ্ধি পাবে ।
টাঙ্গাইল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক আহসানুল হক বাশার বলেন- চলতি মৌসুমে জেলার ১২ টি উপজেলায় ২৩০ হেক্টর জমিতে সূর্যমুখী চাষের লক্ষ্যমাত্র ঠিক করা হয়েছিল। কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আরও ১২ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে সূর্যমুখী। এনিয়ে জেলায় ২৪২ হেক্টর জমিতে সূর্যমূখী চাষ করা হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় এ বছর ১৪ হেক্টর বেশি চাষ হয়েছে। চাষিদের প্রণোদনার মাধ্যমে বিনামূল্যে সূর্যমুখীর বীজ ও সার দেওয়া হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, গত বছর আমরা ৪৩৫ মেট্রিক টন সূর্যমুখীর ফলন পেয়েছিলাম। এ বছর ২৪২ হেক্টর জমি থেকে ৪৪২ মে.টন সূর্যমুখী ফলন আশা করছি এবং এ সূর্যমুখী বেশি ভাগই হাইব্রিড জাতের।
উপ-পরিচালক আহসানুল হক বাসার আরও জানান, বাংলাদেশ গবেষণাগার থেকে বারি সূর্যমুখী কিছুটা ফসল উৎপাদন বেশি হয়। আর তেলের পরিমাণও বেশি থাকে। সব দিক বিবেচনা করে তেলের চাহিদা পূরণ করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডাক দিয়েছেন যে, আমাদের দেশীয় তেল সয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে হবে। সে লক্ষে প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের কৃষিমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় আমরা টাঙ্গাইলে কাজ করে যাচ্ছি এবং সরিষার পাশাপাশি স্বাস্থ্যসম্মত তেল জাতীয় সূর্যমুখীর চাষও বৃদ্ধির প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
নাগরিক ভাবনা/হলি

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X