1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাদারগঞ্জে কোটা বিরোধী আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ   কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য পদে উপ-নির্বাচনে লড়ছেন মোহাম্মদ ফাহিম ভূঞা  শ্রীমঙ্গলে চাঞ্চল্যকর আইনজীবী হত্যাকাণ্ডের ২জন গ্রেপ্তার মৌলভীবাজার জেলা জামায়াতে ইসলাম আমির গ্রেপ্তার ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে দ্বিতীয় শ্রেনীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ মুক্তিযোদ্ধাদের কটুক্তি করার প্রতিবাদ ও অধিকার বাস্তবায়নের দাবীতে পিরোজপুরে মানববন্ধন লোহাগড়ায় পৈত্রিক সম্পত্তি লিখে নিতে বোনকে জিম্মি করবার অভিযোগ কুষ্টিয়ায় কোটা সংস্কারের আন্দোলনে ৮ মোটরসাইকেলে আগুন, গুলিবিদ্ধ  ১  তালার কুখ্যাত ডাকাত রিয়াজুল গ্রেফতার কোটা বিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মাদারীপুর জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

ফেনীতে ছাত্রলীগ নেতার রগ কেটে দিলেন যুবলীগকর্মী

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: সোমবার, ২৭ মার্চ, ২০২৩
  • ১৩১ বার পঠিত

আবুল হাসনাত রিন্টু: ফেনীর সোনাগাজীতে এক ছাত্রলীগ নেতার পায়ের রগ কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কিছু কর্মীর বিরুদ্ধে। এ সময় আহত ছাত্রলীগ নেতার ছোট ভাই ও এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়েছেন অভিযুক্তরা।

উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম আহম্মদপুর গ্রামের বাঁশতলা নামক স্থানে গত শনিবার রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নেজাম উদ্দিন মাস্টার ও মো. নাঈম নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আহতরা হলেন আমিরাবাদ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী হৃদয় (২২), তাঁর ভাই নয়ন উদ্দিন চৌধুরী (১০) ও যুবলীগ নেতা মোশারফ হোসেন (৪০)। হৃদয় ও নয়নকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এবং মোশারফ হোসেনকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অভিযুক্তরা হলেন চরডুব্বা গ্রামের শফি উল্যাহর ছেলে যুবলীগকর্মী আরিফ হোসেন ও সাইফুল ইসলাম।

পুলিশ ও দলীয় সূত্র জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে শনিবার রাতে আরিফ হোসেন ও তাঁর ভাই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ২০-২২ জন কর্মী দলবদ্ধ হয়ে ইফরান হোসেন নামের এক দোকান কর্মচারীর ওপর হামলার উদ্দেশ্যে তেড়ে যান। এ সময় যুবলীগ নেতা মোশারফ হোসেন তারাবির নামাজ পড়তে মসজিদে যাচ্ছিলেন। তিনি হামলাকারীদের সামনে পড়ে তাঁদের থামানোর চেষ্টা করেন। তখন যুবলীগকর্মীরা তাঁর ওপর হামলা চালান। তাঁর সঙ্গে থাকা ছাত্রলীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী হৃদয়ের ওপরও হামলা চালান এবং পায়ের রগ কেটে দেন। হৃদয়ের আর্তচিৎকারে তাঁর ছোট ভাই নয়ন এগিয়ে এলে তাকেও পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়।

এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা মোশারফ হোসেনের ভাই সাহাব উদ্দিন বাদী হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ৮-১০ জনকে অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় গতকাল রবিবার মামলা করেছেন।

মামলার আসামিরা হলেন আরিফ হোসেন, তাঁর ভাই সাইফুল ইসলাম, নেজাম উদ্দিন মাস্টার, মো. নাঈম, রিফাত, অন্তর, আরাফাত, মেজবাহ, রাহাত, মো. আরমান, আমজাদ হোসেন, মো. হায়দার, মো. মিরাজ ও অজ্ঞাতপরিচয় ৮-১০ জন।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ খালেদ হোসেন দাইয়্যান এ ঘটনায় কয়েকজন আহত ও মামলা হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও আমিরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল হিরণ বলেন, ‘দুই গ্রুপেই আমাদের দলের লোকজন। তুচ্ছ ঘটনায় একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে গেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X