1. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  2. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  3. news.rifan@gmail.com : admin :
  4. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
  5. srhafiz83@gmail.com : Hafizur Rahman : Hafizur Rahman
  6. elmaali61@gmail.com : Elma Ali : Elma Ali
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাদারগঞ্জে কোটা বিরোধী আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ   কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য পদে উপ-নির্বাচনে লড়ছেন মোহাম্মদ ফাহিম ভূঞা  শ্রীমঙ্গলে চাঞ্চল্যকর আইনজীবী হত্যাকাণ্ডের ২জন গ্রেপ্তার মৌলভীবাজার জেলা জামায়াতে ইসলাম আমির গ্রেপ্তার ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে দ্বিতীয় শ্রেনীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ মুক্তিযোদ্ধাদের কটুক্তি করার প্রতিবাদ ও অধিকার বাস্তবায়নের দাবীতে পিরোজপুরে মানববন্ধন লোহাগড়ায় পৈত্রিক সম্পত্তি লিখে নিতে বোনকে জিম্মি করবার অভিযোগ কুষ্টিয়ায় কোটা সংস্কারের আন্দোলনে ৮ মোটরসাইকেলে আগুন, গুলিবিদ্ধ  ১  তালার কুখ্যাত ডাকাত রিয়াজুল গ্রেফতার কোটা বিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মাদারীপুর জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল
বিশেষ ঘোষণা :
সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন।

প্রবল বর্ষণে আতঙ্কিত তিস্তা পাড়ের মানুষ

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪
  • ১৪ বার পঠিত

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: প্রবল বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে লালমনিরহাটে তিস্তার পানি বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ১৯ জুন বুধবার সকাল থেকে তিস্তার পানি প্রবল স্রোতে প্রবাহিত হওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে তিস্তার দুই পাড়ের মানুষ। এদিকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তার অববাহিকার চরাঞ্চলগুলোর ঘরবাড়ি ও ফসলি জমিতে পানি উঠতে শুরু করেছে। তিস্তার অববাহিকায় বসবাসকারী মানুষজন আসবাবপত্রসহ শুকনো এলাকায় উঠতে শুরু করেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, বুধবার ভোর থেকে তিস্তা নদীর পানি ডালিয়া ব্যারাজ পয়েন্টে বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও কাউনিয়া পয়েন্টে বিপদসীমা অতিক্রম করতে থাকে। পরে সকাল ৯টায় ব্যারাজ পয়েন্টে বিপদসীমার ২৩ সেন্টিমিটার নীচ দিয়ে এবং কাউনিয়া পয়েন্টে ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। দুপুর ১২টায় ব্যারাজ পয়েন্টে ২৭ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে এবং কাউনিয়া পয়েন্ট ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। তিস্তার পানি সন্ধ্যা পর্যন্ত আরও কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে এরপর কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

পানি বাড়ায় তিস্তা অববাহিকার নদী তীরবর্তী ও চরাঞ্চলে বসবাসরত মানুষজন বন্যা ও নদীভাঙন আতঙ্কে পড়েছেন। বিশেষ করে সদর উপজেলার রাজপুর, খুনিয়াগাছ ইউনিয়ন এবং আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী, ডাউয়াবাড়ি ইউনিয়নগুলো বসতবাড়ি ও ফসলি জমি বন্যার পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাত দিয়ে লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শুনীল কুমার বলেন- আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চলের দুধকুমার, তিস্তা ও ধরলা নদীসমূহের পানি সমতল সময় বিশেষে দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে এবং কতিপয় স্থানে বিপদসীমা অতিক্রম করে নদী সংলগ্ন নিম্নাঞ্চলে স্বল্প মেয়াদী বন্যা পরিস্থিতির দেখা দিতে পারে। তাছাড়া রাত হলেই প্রবল বর্ষন যেকোন সময় বন্যা পরিস্থিতি বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

n/v

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...

আপনি কি লেখা পাঠাতে চান?

সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা শীঘ্রই 09602111973 অথবা 01819-242905 নাম্বারে যোগাযোগ করুন...

X