1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৬:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিল ভারত কালীগঞ্জ পৌরসভায় নবনির্বাচিত এমপিকে সংবর্ধনা হোমনায় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীর সংবর্ধনা শরণখোলায়  সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতিবেশীদের হয়রানীর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন মাদারীপুরে বাসের ধাক্কায় চলন্ত মোটরসাইকেলে আগুন, নিহত-১ দেশসেরা ক্যাডেট ইনসেন্টিভ এওয়ার্ড পেলেন কুবি বিএনসিসির সিইউও সাদী  বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য অধ্যাপক ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া  রমজানে কোনো পণ্যের দাম বাড়বে না: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদনগরে নব-নির্বাচিত দুই সংসদ সদস্যকে সংবর্ধনা মৃত্যুর পূর্বপর্যন্ত গরীবের পাসেই থাকবো: মুর্শিদ




২৫ বছরের আগে বিয়ে করলেই পুরস্কার

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ২৯ আগস্ট, ২০২৩
  • ৯৮ বার পঠিত

চীনে উদ্বেগজনক হারে কমছে বিয়ের সংখ্যা। এতে কমেছে দেশটির জনসংখ্যাও। এ পরিস্থিতিতে তরুণ-তরুণীদের বিয়ের প্রতি আগ্রহ বাড়াতে বিভিন্ন অভিনব উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এর মধ্যে ২৫ বছর বা তার কম বয়সী কোনো তরুণী বিয়ে করলে নতুন দম্পতিকে নগদ এক হাজার ইউয়ান পুরস্কার দেয়া হবে। খবর রয়টার্সের। চীনের পূর্বাঞ্চলের চ্যাংসান কাউন্টি এ ঘোষণা দিয়েছে। কাউন্টির অফিশিয়াল উইচ্যাট অ্যাকাউন্টে এ বিষয়ে একটি নোটিশ প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বলা হয়, উপযুক্ত বয়সে বিয়ে এবং গর্ভধারণের জন্য এ পুরস্কারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া যেসব দম্পতির সন্তান আছে, তাদের জন্যও বিভিন্ন ধরনের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। চীনের আইনানুযায়ী, ছেলেদের বিয়ের বৈধ বয়স ২২ বছর এবং মেয়েদের ২০ বছর। কিন্তু দেশটিতে এ বয়সী তরুণ-তরুণীদের মধ্যে বিয়ের কোনো চিন্তাভাবনা দেখা যায় না। আর এ কারণে জন্মহারে ব্যাপক প্রভাব পড়ছে। গত ৬০ বছরের মধ্যে ২০২২ সালে প্রথমবারের মতো চীনের জনসংখ্যা কমে গেছে। জন্মহার খুবই কম হওয়ায় দেশটিতে কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা কমে গেছে। অন্যদিকে বেড়ে গেছে বয়স্কদের সংখ্যা। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে চীন। এরপর জন্মহার বাড়াতে তারা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেয়ার ঘোষণা দেয়। ২০২২ সালে চীনে মাত্র ৬০ লাখ ৮০ হাজার বিয়ে হয়, যা ১৯৮৬ সালের পর সর্বনিম্ন। ২০২১ সালে যে সংখ্যক বিয়ে হয়েছিল ২০২২ সালে সে তুলনায় ৮ লাখ কম বিয়ে হয়েছিল। আবার বিয়ে হলেও শিশু লালন-পালনের ব্যয় ও নানান কারণে সন্তান নিতে চান না চীনা নারীরা।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...