1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখে : নসরুল হামিদ মানুষের হাতে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি টাকা রয়েছে: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী ৫ বছরে সরকারি চাকরি পেয়েছেন কতজন, জানালেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী নির্দেশনা না মানলে কঠোর শাস্তির হুঁশিয়ারি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ‘বিএনপির আটক কর্মীদের মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের সম্পর্ক নেই’ বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম বৃদ্ধি সরকারের একটি অমানবিক খেলা: রিজভী একা একা লাগে মাহিয়া মাহির রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখবে সরকার: কাদের চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য টগরকে নাগরিক সংবর্ধনা ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ৩৩টি গাঁজাগাছ সহ নারী গ্রেপ্তার




সবজী চাষে এগিয়ে সদরপুরের শৌলডুবী

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ১০ বার পঠিত

সুমি আক্তার: বৃহত্তর ফরিদপুরের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার সবজী উৎপাদনে এগিয়ে রয়েছে জেলার সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের শৌলডুবী এলাকা। এখানে প্রতিদিন সকালে স্থানীয় বাজারগুলোতে বিভন্ন প্রকার সবজী পাইকারী ও খুচরা দামে বিক্রি করা হয়।

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন মজুমদার বাজারসহ স্থানীয় বাজার থেকে সবজী ক্রয় করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাইকারি দামে বিক্রি করে থাকেন। এই এলাকার মাটি সবজী চাষের উপযোগী হওয়ায় স্থানীয় চাষীরা প্রতিবছর বেগুন, সিম, বরবটি, পেঁয়াজ-মরিচ, ঝিঙা, টমেটো, চিচিংঙ্গা, মিষ্টি কুমড়া, লাউ, ধুন্দুল, কাঁচকলা, শসা, মূলা, পাতাকপি, ফুলকপি, লালশাক, পালংশাক, ধনিয়াপাতাসহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজী উৎপাদনে সাফল্য দেখিয়ে আসছে।

সবজী চাষী ওবায়দুর রহমান জানান, বর্তমানে পদ্মা সেতু চালু হওয়ার কারণে স্বল্প সময়ে এখান থেকে বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজী দেশের বৃহত্তম আড়ৎ ঢাকার কাওরান বাজার, শ্যাম বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে পৌঁছে যাচ্ছে। পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ চালু হওয়ায় আগের তুলনায় আরও বেশী দামে সবজী বিক্রী করতে পারছি।

চাষী আবুল সত্তার খানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমি এবছর ১৫ শতাংশ জমিতে সিম চাষ করেছি। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ফলন ভাল হয়েছে। বাজারে ভাল দাম পেলে লাভবান হবো।

স্থানীয় ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম নূরু বলেন, সরকার যদি কৃষকদের প্রনোদনার মাধ্যমে আর্থিক সহযোগীতা করে তবে তারা অনেক উপকৃত হবে।

সদরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নিটুল রায় জানান, এবার শীত মৌসুমে ৭২৫ হেক্টর জমিতে আমরা সবজী চাষের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেছি। আমরা চাষিদের বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করছি এবং সরকারী বিভিন্ন সাহায্য সহযোগীতা করছি।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...