1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:০৪ অপরাহ্ন




শ্রীমঙ্গলে ১৭৩ পূজা মন্ডপে হচ্ছে দূর্গা পূজা

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৫১ বার পঠিত
তিমির বনিক: ঢাক, ঢোল, শঙ্খ আর উলুধ্বনির মধ্য দিয়ে চলছে বাঙালি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজার আনুষ্ঠানিকতা। আর এই উৎসবকে ঘিরে মৌলভীবাজার জেলার পৌরশহরসহ উপজেলার অন্যান্য মণ্ডপে মণ্ডপে নান্দনিক মূল ফটকসহ দৃষ্টিনন্দন সাজসজ্জায় সজ্জিত মুগ্ধ দর্শনার্থীরা। গত শনিবার (২০ অক্টোবর) ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে পূজার মূল আনুষ্ঠিকতা। মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) দশমী তিথিতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে এবারের দুর্গা পূজা। সোমবার শ্রীমঙ্গল পৌর শহরের শ্রী শ্রী শ্রীমঙ্গলেশ্বরী কালিবাড়ী , রামকৃষ্ণ মিশন মণ্ডপ, মাষ্টার পাড়া সংসদ পূজা ঘুরে দেখা যায়, সময় বাড়ার সঙ্গে দর্শনার্থীদের ভিড় বাড়ছেই। পূজামণ্ডপের নান্দনিক মূল ফটকসহ দৃষ্টিনন্দন সাজসজ্জা দেখে মুগ্ধ তারা। এখানকার পূজামণ্ডপে নানা রকমের প্রতিমা রয়েছে। বাহারী রং আর বৈচিত্রময় কারুকাজে সাজানো হয়েছে প্রতিমাগুলো।
বেশ কয়েকজন দর্শনার্থী জানান, এবার অন্য বছরের তুলনায় শহরের পূজামণ্ডপ গুলোতে বাঁশ, কাপড়, শোলার দ্বারা তৈরি দৃষ্টিনন্দন সাজসজ্জা করা হয়েছে। মাষ্টার পাড়া পূজা পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কোষাধ্যক্ষ অভিজিৎ গোস্বামী বলেন, ‘সব সময়ই নতুনত্ব কিছু করার চেষ্টা করি, এ ধারবাহিকতায় এবারও পূজা-অর্চনার পাশাপাশি বর্ণিল আলোক সজ্জায় আমাদের মন্ডপগুলো সাজিয়ে তোলা হয়েছে।
তারা আরও বলেন, ‘প্রতিমাসহ বর্ণিলভাবে মণ্ডপ সাজানো হয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গোৎসব পালনের জন্য কেন্দ্রীয় নির্দেশনার আলোকে নানা প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন বলে জানান তিনি।
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা চলমান আজ মহা নবমী। এ উপলক্ষে জেলার মণ্ডপগুলোতে উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
এবার মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ১৭৩টি সার্বজনীন এবং ১৭টি ব্যক্তিগত মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানা গেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলী রাজিব মাহমুদ মিঠুন জানান, সরকার থেকে সার্বজনীন মন্ডপগুলোর জন্য প্রতিটিতে ৫শ’ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ব্যক্তিগত মন্ডপের জন্য কোন বরাদ্দ নেই বলে জানান তিনি।
বিভিন্ন এলাকার পূজা মণ্ডপগুলো ঘুরে দেখা গেছে, মন্দিরের চারপাশও সাজানো হয়েছে বাহারি নকশায়। মন্দিরের প্রধান ফটকসহ অন্যান্য জায়গাগুলোও বর্ণিল করে তোলার কাজ চলছে।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় নির্বিঘ্নে উৎসবমুখর পরিবেশে পূজা সম্পন্ন করতে সবধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।
সনাতনী পঞ্জিকা অনুযায়ী, আজ ২৩ অক্টোবর মহানবমী ও ২৪ অক্টোবর বিজয়া দশমী। এদিন প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে দুর্গোৎসবের আনুষ্ঠানিকতা।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...