1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :




যশোরে ৫ কেজি বিষ্ফোরক উদ্ধার, কয়েকদিনে বিভিন্ন স্পটে হঠাৎ বোমাবাজিতে আতংক

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৭৪ বার পঠিত

জেমস আব্দুর রহিম রানা : গত কয়েক দিনের ব্যবধানে যশেরের কয়েকটি স্পটে বোমাবাজির ঘটনায় আতংক সৃষ্টি হয়েছে সংশ্লিষ্ট এলাকার লোকজনের মধ্যে। দলবদ্ধ হয়ে হঠাৎ করে বোমাবাজি করে সটকে পড়ছে দুর্বৃত্তরা। বিশেষ করে ১৮ নভেম্বর রাতে ঘোপে সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের বাড়ির সামনে, কাজীপাড়া এলাকায় এবং কয়েকদিন আগে ষষ্টিতলাপাড়ার পিটিআই রোডে বোমাবাজির ঘটনা জোরেসোরে আলোচনা হচ্ছে শহরে। পুলিশের পক্ষে ঘটনায় জড়িতদের খোঁজা হচ্ছে।

এদিকে, একইদিন সন্ধ্যায় ৫ কেজি বিষ্ফোরকদ্রব্যসহ দুই জনকে আটক করেছে যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখা ডিবি। যশোর খুলনাঞ্চলে নাশকতা সৃষ্টির জন্য ওই বোমা তৈরির মসলা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলেও তথ্য মেলে আটককৃতদের কাছ থেকে।

গত ৬ নভেম্বর যশোর শহরের ষষ্টীতলাপাড়া পিটিআই রোডে বোমাবাজির কয়েকটি ঘটনা ঘটে। অজ্ঞাত পরিচয়ের দুর্বৃত্ত চক্র জিলা স্কুল থেকে পিটিআই রোডের প্রবেশ মুখে এই বোমাবাজির ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ওই দিন রাত ৯ টা ৫০ মিনিটের দিকে কে বা কারা পাশের একটি গলির মধ্যে থেকে কয়েকটি বোমা রাস্তায় ছুঁড়ে মারে। সাথে সাথেই বিস্ফোরিত হয়। এরপর অজ্ঞাত পরিচয়ের লোকজনকে দৌড়াঁদৌঁড়ি করে পালিয়ে যেতেও দেখেন অনেকে। এরপর ১৮ নভেম্বর রাতে যশোর শহরের ঘোপ ও কাজীপাড়া এলাকায় অনেকগুলো বোমাবাজির ঘটনা ঘটে। ঘোপের পিলুখান রোডে এদিন রাত ১০ টা ৩৫ মিনিট থেকে রাত ১০ টা ৫০ মিনিটের মধ্যে কয়েকটি স্পটে বিকট আওয়াজ শুনতে পান সংশ্লিষ্ট এলাকার লোকজন ঘোপের পিলুখান রোডের যে স্পটে বোমাবাজি হয়েছে বলে তথ্য মিলেছে তার অদুরে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের বাড়ি।

প্রয়াত তরিকুল ইসলামের বড় ছেলে শান্তনু ইসলাম সুমিত জানিয়েছেন, ১৮ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তাদের বাসভবনে একের পর এক বোমা হামলা শুরু হয়। অন্তত ১৫টি হাতবোমা নিক্ষেপ করা হয়। বোমার বিকট শব্দে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে এলাকা। পরিবারের সদস্যসহ এলাকার মানুষের মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয়।

হামলাকারীরা পাশে তার চাচার বাড়িতেও বোমা নিক্ষেপ করে। এদিকে ঘটনার পরপরই আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার একাধিক টিম ঘটনাস্থানগুলো পরিদর্শন করে। পিটিআই রোডের বোমাবাজির ঘটনায় র‌্যাব ও পিবিআই যশোরের টিম পরিদর্শন করে।

এদিকে ১৮ নভেম্বর ঝিকরগাছার লাউজানি রেল লাইন এলাকা থেকে ৫ কেজি বিষ্ফোরক উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। এ ঘটনায় দুই জনকে হাতেনাতে আটক করা হয়। এরা হচ্ছে খুলনা বটিয়াঘাটার ঠিকরাবাদ গ্রামের আজাদ খানের ছেলে নোমান খান (২৮) ও সদর উপজেলার আমিনুল ইসলামের ছেলে হিজেল বাবু (২৪)।

এ ঘটনায় ডিবি যশোরের অভিযানিক অফিসার এসআই মফিজুল ইসলাম জানান, আটককৃত দুইজন খুলনার আলোচিত সন্ত্রাসী জিতুর হয়ে ওই বিষ্ফোরক বেনাপোল থেকে নিয়ে আসে। যশোর খুলনাঞ্চলে বোমাবাজি ও নাশকতা সৃষ্টির জন্য ওই বোমা তৈরির মসলা নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল ।

এদিকে বোমাবাজির ঘটনার বিষয়ে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক জানান, পুজোর কারণে দু’একটি এলাকায় বাজি-পটকা ফুটেছে। এর মধ্যে ঘোপ এলাকা থেকেও ককটেল ফোটার তথ্য পেয়েছেন।

এ ব্যাপারে থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত এ কে এম শফিকুল আলম চৌধুরী জানিয়েছেন, বোমার সংবাদে ঘোপ এলাকাসহ আরো কয়েকটি এলাকায় পুলিশ খোঁজখবর নিচ্ছে। স্থানীয়দের সাথে কথা বলা হচ্ছে। এব্যাপারে এখনও কোনো নিদিস্ট অভিযোগ আসেনি থানায়।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...