1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :




মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও ব্রেইন স্পাইন নার্ভ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তিনি, অতঃপর…

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: রবিবার, ৭ মে, ২০২৩
  • ২১৩ বার পঠিত

ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে এসএসসি পাশ না করে নামের আগে এমবিবিএস ডিগ্রি লিখে চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগে শরিফুল ইসলাম (৩৯) নামে এক ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

গত শনিবার (৬ মে) পৌর শহরের পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড এলাকার আমাদের হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার থেকে তাকে আটক করে হাসপাতালটি সিলগালা করে দেয় প্রশাসন।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: শামছুজ্জামান আসিফ তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং ২ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন।

আটককৃত ভূয়া ডাক্তার নিজেকে ভারতের চিকিৎসক দাবি করলেও মূলত তার বাড়ি বাংলাদেশের চাপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায়। তিনি বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বৈত নাগরিক।

জানা যায়, বেশ কিছুদিন থেকে আমাদের হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে জেনারেল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ও ব্রেইন স্পাইন নার্ভ বিশেষজ্ঞ হিসেবে সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন তিনি। ওই ভুয়া চিকিৎসক তার নেমপ্লেটে ভারতের রাজীব গান্ধী স্বাস্থ্য বিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমবিবিএস ডিগ্রী অর্জন করেছেন বলে উল্লেখ করেন। সেখানে নাম কিছুটা পাল্টিয়ে ডা: শারিফুল ইসলাম উল্লেখ করে প্রতারণা করে আসছিলেন। এ অবস্থায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: শামছুজ্জামান আসিফের নেতৃত্বে ঠাকুরগাঁও আনসার ব্যাটালিয়ন-১ ও স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম নিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে।

স্থানীয়দের দাবি, এসএসসি পাস না করেও দীর্ঘদিন নামের আগে এমবিবিএস ডিগ্রী লিখে ভুল চিকিৎসা দেয় তিনি। আজ আদালত অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করে তবে হাসপাতালের যিনি পরিচালক কামরুজ্জামান বাবু তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেওয়া খুব্ধ হয় তারা। অবিলম্বে তারা হাসপাতাল পরিচালকের শাস্তি দাবী জানান।

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: শামছুজ্জামান আসিফ জানান, এই ভূয়া চিকিৎসকের বিরুদ্ধে আমরা আগেও দুইবার অভিযান পরিচালনা করেছি কিন্তু আমরা আসার আগেই তারা সরে গিয়েছে। আজ প্রায় চার ঘন্টারও বেশি সময় অভিযান পরিচালনা করে তার অর্জিত সকল কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করেছি। দেশে কিংবা ভারতে কোথাও তার বিএমডিসি রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার সহ কোন ডিগ্রি নেই। তার দেওয়া সব ঠিকানায় মূলত ভূয়া। তিনি এসএসসি পাশও করেনি। হাসপাতাল কে সিলগালা করা হয়েছে এবং কতৃপক্ষের প্রতি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

নাগরিক ভাবনা/এইচএসএস 



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...