1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :




বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ; ধর্ষক আটক

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: সোমবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৮১ বার পঠিত

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার: কুিমল্লার দেবিদ্বারে বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে ৪ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলার চরবাকর গ্রামের মিজানুর রহমানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত রিয়াজ (১৯) ও ভিক্টিম কিশোরী(১৬)কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

ওই ঘটনায় ভিক্টিম কিশোরীর মা’(৩৫) বাদী হয়ে রোববার (৩ এপ্রিল) দেবিদ্বার থানায় হাজির হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এর ২০০০সালের ৯(১), সংশোধনী ২০০৩ ধারায় জাফরগঞ্জ গ্রামের রুস্তম আলীর পুত্র মো. রিয়াজ ওরফে রিমন(১৯)কে একমাত্র আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বাদী ভিক্টিম কিশোরীর মা’ নাগরিক ভাবনাকে জানান, প্রায় ৬মাস পূর্বে সিএনজি যোগে গ্রামের বাড়িতে যাওয়া-আসার সুবাধে সিএনজি চালক রিয়াজের সাথে আমার মেয়ের পরিচয় হয়। পরিচয় সূত্রে সে আমার মেয়েকে পছন্দ করে বলে জানিয়েছিল। গত ৩০ মার্চ বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটায় আমার মেয়ে কালিকাপুর হয়ে বাড়ি আসার পথে রিয়াজ বিয়ের প্রলোভনে তাকে নিয়ে চরবাকর গ্রামের সিএনজির মালিক মো. মিজানুর রহমানের বাড়িতে উঠে এবং সেখানে স্ত্রীর পরিচয়ে ৪ দিন আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করে। আমি খবর পেয়ে চরবাকর মিজানের বাড়িতে গিয়ে মেয়ের সন্ধান পাই এবং সে আমাকে বিস্তারিত জানায়। তিনি আরো জানান, প্রায় ৭/৮ বছর পূর্বে তার স্বামী আবুল হোসেন তাকে তালাক দিয়ে আরো একটি বিয়ে করে নিরুদ্দেশ হন, পরে তিনিও একই গ্রামের মো. আলেক মেম্বারের সাথে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন। একমাত্র মেয়ে পিতা- মাতা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে তার নানার বাড়িতে থেকে বড় হয়। বর্তমানে সে সাইচাপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ে।

সোমবার দুপুরে (৩ এপ্রিল) আটক রিয়াজকে কুমিল্লা ৪ নং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট আদালতে হাজির করা হয়। শোনানী শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ওমর ফারুক অভিযুক্ত রিয়াজকে জেল হাজতে এবং ভিক্টিম কিশোরীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডাক্তারী পরীক্ষার নির্দেশ দেন।

এ ব্যপারে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) খাদেমুল বাহার জানান, কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে, আসামী গ্রেফতারপূর্বক কোর্ট হাজতে চালান করা হয়েছে।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...