1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৮ অপরাহ্ন




পাহাড়ে তৈরি হচ্ছে সবচেয়ে উঁচু সড়ক; বদলে যাচ্ছে ৩ পার্বত্য জেলা

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪২ বার পঠিত
মাসুদ রানা জয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম ব্যুরো: দুর্গম পাহাড়ের বুক চিড়ে তৈরি হচ্ছে দেশের সবচেয়ে উঁচু সীমান্ত সড়ক। এক হাজার ৩৬ কিলোমিটারের এই পথ ধরে হাতছানি দিচ্ছে ব্যবসা বাণিজ্যের অপার সম্ভাবনা। শান্তি চুক্তির ২৬ বছরে পার্বত্যাঞ্চলে উন্মোচিত হচ্ছে উন্নয়নের নানা সম্ভাবনার দুয়ার। আর এই সীমান্ত সড়ক নির্মাণে অসম্ভবকে সম্ভব করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। সরকারের চ্যালেঞ্জিং এই মেগা প্রজেক্ট বদলে দিচ্ছে তিন পার্বত্য জেলা বান্দরবান, খাগড়াছড়ি ও রাঙামাটিকে।
সীমান্ত সড়ক প্রকল্পটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ২ হাজার ৮শ ফুট উঁচু। এ সড়কের মোট দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৩৬ কিলোমিটার। প্রকল্পটির কাজ তিনটি পেইজে ভাগ করা হয়েছে। পুরো প্রকল্পের কাজ ২০৩৬ সালের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা। এখন পর্যন্ত প্রথম ধাপে ২০৫ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ শেষ হয়েছে।
পুরো কাজ শেষ হলে এটি হবে দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ উঁচু সড়ক নেটওয়ার্ক। ইতোমধ্যে খাগড়াছড়ির বেতলিং, রাঙামাটির মাঝিরপাড়া ও সাই চলে পাহাড়ের কোল ঘেঁষে সীমান্ত সড়ক নির্মাণ শেষ হয়েছে। একটা সময় পাহাড়ে বসবাসরত বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের কেউ অসুস্থ হলে ১৫-২০ কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে রোগীকে সদর হাসপাতালে নিতে হতো। পাহাড়ের সেই দৃশ্যপট এখন পাল্টে গেছে। প্রকল্পে পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান এবং সড়কের পাশে স্কুল কলেজ হাসপাতালের কথা মাথায় রেখেই কাজ করছে প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। এমনটা জানিয়েছেন সীমান্ত সড়ক প্রকল্প কর্মকর্তা মেজর এইচ এম ইকরামুল হক।
এছাড়া শান্তিচুক্তির পর তিন পার্বত্যাঞ্চলে পাকা রাস্তা নির্মিত হয়েছে, ১ হাজার ২১২ কিলোমিটার। কাঁচা সড়ক ৭শ কিলোমিটার, সড়ক সংস্কার ৬১৪ কিলোমিটার, ব্রিজ নির্মাণ ৯ হাজার ৮৩৯ মিটার এবং কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে ১৪১টি।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...