1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :




ছাগলনাইয়ায় স্কুল শিক্ষিকা সহ স্বামী-সন্তানকে ছুরিকাঘাত: ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: রবিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১০২ বার পঠিত

আবুল হাসনাত রিন্টু: ফেনীর ছাগলনাইয়ায় ছেলের উপর হামলার প্রতিবাদ করায় স্কুল শিক্ষিকা ও তার স্বামী-সন্তানকে ছুরিকাঘাত করেছে স্থানীয় বখাটেরা। শনিবার বিকেলে ছাগলনাইয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও থানা প্রাঙ্গণ এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুদ্বীপ রায়।

হামলায় ছাগলনাইয়া সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা শামীমা আক্তার (৪৭) ও তার স্বামী ব্যবসায়ী একেএম ফরিদুল আলম (৫২) ও ছেলে একেএম আইনুল আলম (২২) আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে একেএম ফরিদুল আলমের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। শিক্ষিকা ও তার ছেলে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফিরেছেন। হামলার ঘটনায় আহত স্কুল শিক্ষিকা বাদী হয়ে শনিবার রাতে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল, তার ভাই তাহসিফ, তাদের মা রাবেয়া আক্তার ও স্থানীয় মানিকের ছেলে সনেটকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে হামলাকারী ফয়সাল (২৩) ও তার মা রাবেয়া আক্তারকে (৪২) গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার ফয়সাল ওই এলাকার শিমুলের ছেলে। ফয়সাল ছাগলনাইয়া পৌরসভার পশ্চিম ছাগলনাইয়া ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।

স্কুল শিক্ষিকা শামীমা আক্তার বলেন, পশ্চিম ছাগলনাইয়া গ্রামের থানা পাড়া এলাকার মো. শিমুলের ছেলে ফয়সাল, তাহসিফ ও মো. মানিকের ছেলে সনেট সহ একটি কিশোর গ্যাং দীর্ঘদিন ধরে থানা পাড়াসহ আশপাশের এলাকা মাদক সেবন, বিক্রি ও নানা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিল। তারা কারণে অকারণে মানুষের উপর হামলা করে চলছিলো। শনিবার বিকেলে তারা আমার ছেলে একেএম আইনুল আলমকে মারধর করে। সে বাসায় এসে হামলার কথা আমাকে জানালে আমি আমার অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে বিষয়টি জানার জন্য ছেলেসহ হাসপাতালের সামনে যাই।এতে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল ও তার কয়েক সাঙ্গপাঙ্গ আমাদের দেখে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। আমার ছেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ম্যাসেঞ্জারে কি লিখছে- একথা বলে তেড়ে এসে আমাকে, আমার স্বামী ও ছেলেকে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে। তারা আমার হাতে এবং আমার স্বামীর বুকে ছুরি চালায়। তৎক্ষণিক পুলিশ ফয়সালকে ছুরি সহ আটক করে।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি সুদ্বীপ রায় জানান, ফরিদুল আলমের বুকে মারাত্মকভাবে ছুরিকাঘাত করেছে ফয়সাল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফয়সাল ও পরে তার মাকে আটক করে। ফয়সালের কাছ থেকে ছুরি ও দুটি লোহার পাইপ উদ্ধার করেছে পুলিশ।মামলার অপরাপর আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। গ্রেপ্তার ফয়সাল ও তার মাকে রোববার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...