1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০২:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :




কাশিমপুর থানা পুলিশের পৃথক অভিযান, গ্রেফতার ৩

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: রবিবার, ২ এপ্রিল, ২০২৩
  • ১৫৭ বার পঠিত

আবু সাঈদ: গাজীপুর মহানগরের কাশিমপুর থানা পুলিশ পৃথক অভিযানে তিন ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে। অবৈধ বিদেশী পিস্তল ও ফেন্সিডিলসহ এক ব্যাক্তিকে জন গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার (০২ এপ্রিল) দুপুরে জিএমপি’র গোয়েন্দা (ডিবি) কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমশিনার রোজোয়ান আহমেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এর আগে শনিবার (০১ এপ্রিল) বিকেলে কাশিমপুর থানাধীন সারলাগঞ্জ (পুকুরপাড়) এলাকার জাহিদুল ইসলামের বাড়ী এবং লোহাকৈর মাজার (তিন রাস্তার) মোড়ে থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো গাজীপুর মহানগরের সারদাগও পুকুরপাড় এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৩০), বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার আউলিয়াপুর গ্রামের আব্দুল হাই হাওলাদারের ছেলে শহিদুল ইসলাম (৩৫) এবং টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার খামার পাড়া গ্রামের জবেদ আলীর ছেলে মাসুম (১৮)।

কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ রাফিউল করিম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানাধীন সারলাগঞ্জ (পুকুরপাড়) এলাকার জাহিদুল ইসলামের বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ। এসময় জাহিদুল ইসলামের দেহ তল্লাশী করে কোমরের ডান পাশে গোঁজা অবস্থায় লোহার তৈরি একটি বিদেশী পিস্তল ও দুইটি ম্যাগাজিন, একটি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়। পরে তার বসত ঘরে তল্লাশী করে প্লাস্টিকের ব্যাগের ভিতর মোড়ানো খাটের নিচ থেকে ৬ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, অস্ত্র ও মাদক সংগ্রহের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদে জাহিদুল ইসলাম অস্ত্রের বিষয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেয় এবং পলাতক আসামী একই থানাধীন বারেন্দ্রা (দক্ষিণপাড়া) এলাকার মৃত লাবিব মোল্লা লাবুর ছেলে আজিজ মোল্লার কাছ থেকে ফেন্সিডিল ক্রয় করার কথা স্বীকার করে।

এদিকে, কাশিমপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাহিদ আল রেজা জানান, লোহাকৈর মাজারের তিন রাস্তার মোড়ে চেকপোষ্ট পরিচালনা করে পুলিশ। এসময় একটি পিকআপ চেকপোষ্ট পার হওয়ার সময় পুলিশ চালককে থামার জন্য সিগন্যাল দেয়। সিগন্যাল না মেনে  পিকআপ রেখে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ধাওয়া করে চালক শহিদুল ইসলাম ও তার সহকারী মাসুমকে গ্রেফতার করে। এসময় একটি চোরাই পিকআপ (নং-ঢাকা মেট্রো-ন-১৭-২৮৯৩) উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে গাড়ীর কাগজপত্র চাইলে তারা দেখাতে পারে নাই। এক পর্যায়ে তারা স্বীকার করে তাদের সাথে থাকা অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার (মালাউড়ি) এলাকা থেকে পিকআপটি চুরি করে। বিক্রির জন্য পিকআপটি সাভারের জিরানি এলাকায় নিয়ে যাচ্ছিল তারা। পরে টাঙ্গাইল জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আহসানুজ্জামানের কাছে চোরাই পিকআপসহ গ্রেফতারকৃত আসামিদ্বয়কে সোপর্দ করা হয়।

 

নাগরিক ভাবনা/এইচএসএস



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...