1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন




ইসলামী প্রচার যদি যথাযথ ভাবে হয় শুধু মুসলমানরা নিরাপদ নয় হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্ট্রানরাও নিরাপদ : মৎস্য ও প্রানিসম্পদ মন্ত্রী

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৯৯ বার পঠিত

হাসান মামুনঃ মৎস্য ও প্রানিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম.রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, এতো সরকার আসলো গেলো। খালেদা জিয়া তো ইসলাম নিয়া দৌড় ঝাপ করেছে। তিনি বাংলাদেশে ইসলামিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য একটা বিশ্ববিদ্যালয় কেনো করেন নাই ? শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে আরবি বিশ্ববিদ্যালয় করেছেন। এবং সেই আরাবি বিশ্ববিদ্যালয় সঙ্গে পৃথিবীর এন রাষ্ট্রের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে যে আমাদের আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা ওই দেশে উচ্চ শিক্ষা নিতে পারবে। তারা মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে পারবে। সরকার নিজের টাকায় প্রতিটি উপজেলায় ইসলামিক স্বাস্কৃতিক কেন্দ্র মডেল মসজিদ করে দিয়েছেন। মন্ত্রী শনিবার সন্ধ্যায় আলহাজ্ব আব্দুর রউফ নেছারিয় দীনিয়া ও হাফেজিয়া মাদ্রাসার মিলনায়াতনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। মন্ত্রী মলেন, পৃথিবীর কোন দেশে এমন ইসলামিক স্বাস্কৃতিক কেন্দ্র করে দেয় নাই। এমনটি ওখানে ইমাম মুয়াজ্জিন সরকারি বেতন পাবে। একমাত্র বাংলাদেশে তিনি করে দিয়েছেন। কারন শেখ হাসিনা মনে করেন ইসলামের বিকাশ দরকার। প্রকৃত ইসলাম বোঝার জন্য একটি ইসলামিক সাস্কৃতিক কেন্দ্র দরকার। একটা মডেল মসজিদ দরকার।
এর আগে মন্ত্রী শনিবার দুপুরে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার বালিহারী খাদেমুলইসলাম কওমী মাদ্রাসায় এবং পশ্চিম নান্দুহার নিজামিয়া ফোরকানিয়া হাফিজিয়া নূরানী মাদ্রাসা লিল্লাহ্ বোডিং ও এতিমখানার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যেও বলেছেন, কোন জায়গায় নাই ইসলামের খেদমতে শেখ হাসিনার ভূমিকা। যেখানে ইসলাম পরিপন্থি কিছু হয় সেখানে কিন্তু আমাদের সরকার কঠোর পদক্ষেপ নেয়। ইসলামী প্রচার যদি যথাযথ ভাবে হয় তার কাছে শুধু মুসলমানরা নিরাপদ নয় হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্ট্রান তারাও কিন্তু নিরাপদ।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাহবুব উল্লাহ মজুমদার, এসময় সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মো. রিয়াজ হোসেন (পিপিএম), উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আ. হামিদ, উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক, আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ফুয়াদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম নারায়ন রায় চৌধুরী, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপত মোঃ মাহমুদ কবির, পিরোজপুর সদর উপজেরা ভাইস চেয়ারম্যান এস.এম বায়েজিদ হোসেন, উপজেলা আওমীলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মুইদুল ইসলাম, ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেনসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...