1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  5. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  6. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখে : নসরুল হামিদ মানুষের হাতে প্রয়োজনের তুলনায় বেশি টাকা রয়েছে: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী ৫ বছরে সরকারি চাকরি পেয়েছেন কতজন, জানালেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী নির্দেশনা না মানলে কঠোর শাস্তির হুঁশিয়ারি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ‘বিএনপির আটক কর্মীদের মুক্তির সঙ্গে নির্বাচনের সম্পর্ক নেই’ বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম বৃদ্ধি সরকারের একটি অমানবিক খেলা: রিজভী একা একা লাগে মাহিয়া মাহির রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখবে সরকার: কাদের চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য টগরকে নাগরিক সংবর্ধনা ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ৩৩টি গাঁজাগাছ সহ নারী গ্রেপ্তার




ইমামরা তৃণমূল পর্যায়ে ইসলামের শান্তি-সৌহার্দ্য বজায় রাখতে কাজ করবেন: প্রধানমন্ত্রী

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৬৭ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের দেশে যেন কোনো নিরপরাধ ব্যক্তিকে হত্যা বা নির্যাতন করা না হয়। এ বিষয়ে ইমাম-মুয়াজ্জিন,আলেম, ওলামাদের সহযোগিতা চাই। আপনারা দেশের তৃণমূল পর্যায়ে ইসলামের শান্তি ও সৌহার্দ্য বজায় রাখতে কাজ করবেন যেন আমরা আরো উন্নয়ন করতে পারি।

সোমবার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী প্রদর্শনী কেন্দ্রে ‘জাতীয় ইমাম সম্মেলন ও পুরস্কার বিতরণ-২০২৩’ এবং মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে এই বিষয়টা আমরা নিশ্চিত করতে চাই। অন্যের ওপর কোনো অন্যায়-অবিচার বা সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ যেন সৃষ্টি না হতে পারে। ইসলাম শান্তি সম্প্রীতি ও মানবতার ধর্ম। ইসলামের মর্মবাণী তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত পৌঁছে দিতে হবে। তাহলেই আমাদের দেশ অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, নবী করিম হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর শিক্ষা যেন আমরা অনুসরণ করি। আমাদের দেশের কোনো ছেলে-মেয়ে যেন জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এবং মাদকে সম্পৃক্ত হতে না পারে সেজন্য ইমাম-মুয়াজ্জিন,আলেম, ওলামারা যথাযথ শিক্ষা দেবেন এবং সঠিক ব্যবস্থা নেবেন। বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্ম ইসলাম যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় সেদিকে দৃষ্টি দেওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানাচ্ছি। আমরা চাই আমাদের দেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করুক। এ দেশকে আমরা আরো সমৃদ্ধ ও উন্নত করতে চাই।

শেখ হাসিনা বলেন, কোভিড-১৯ দেখা দেওয়ার পর সরকার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সারাদেশে ইমাম-মুয়াজ্জিনদের জন্য আর্থিক অনুদানের ব্যবস্থা করে দেয়। দেশের দরিদ্র মানুষসহ সব শ্রেণি-পেশার জনগণকে আর্থিক সহায়তা ও প্রণোদনা দেওয়ার পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

সরকার প্রধান বলেন, আমরা দেশে একটি আরবি ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছি। যেখানে সৌদি বাদশাহ’র অনুদানে আরবি ভাষা শিক্ষারও একটি ইনষ্টিটিউট গড়ে তোলা হবে। সরকার কওমী মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্স ডিগ্রির সমমর্যাদা প্রদান, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সংস্কার ও আধুনিকায়ন, ৩৫ হাজার মসজিদ ভিত্তিক পাঠাগার নির্মাণ, অর্থ ও বাংলা তরজমাসহ পবিত্র কোরআন শরিফের ডিজিটাল ভার্সন তৈরি, জাকাত তহবিল ব্যবস্থাপনা আইন-২০২৩ প্রণয়ন, সিড মানি দিয়ে ইমাম-মুয়াজ্জিন কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- মসজিদ-ই-নববীর ইমাম শেখ ড.আবদুল্লাহ বিন আব্দুর রহমান আল-বুয়াইজান, বাংলাদেশের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান, ধর্ম সচিব মো. এ হামিদ জমাদ্দার, তরিকত ফাউন্ডেশনের সভাপতি সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডাারী, মাওলানা ড. মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন সরকার সালেহী, মাওলানা এহসানুল হক আল মোজাদ্দেদী প্রমুখ।

 

n/v



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...