1. news.rifan@gmail.com : admin :
  2. smborhan.elite@gmail.com : Borhan Uddin : Borhan Uddin
  3. arroy2103777@gmail.com : Amrito Roy : Amrito Roy
  4. hmgkrnoor@gmail.com : Golam Kibriya : Golam Kibriya
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Md Mohaiminul : Md Mohaiminul
  6. ripon11vai@gmail.com : Ripon : Ripon
  7. holysiamsrabon@gmail.com : Siam Srabon : Siam Srabon
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :




আইসল্যান্ডের রিকজানিস উপদ্বীপে ব্যাপক অগ্ন্যুৎপাৎ

  • সর্বশেষ পরিমার্জন: মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৫০ বার পঠিত

ইউরোপের স্ক্যান্ডিনেভিয়া অঞ্চলের দেশ আইসল্যান্ডের রাজধানী রিকজাভিকের সংলগ্ন উপদ্বীপ রিকজানিসে ব্যাপক অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। কয়েক সপ্তাহ মৃদু ও মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্পের পর সোমবার থেকে শুরু হয়েছে লাভার উদ্গীরণ।

স্থানীয় সময় সোমবার রাত ১০টা ১৭ মিনিট থেকে শুরু হওয়া এই অগ্ন্যুৎপাতের কেন্দ্রস্থলের নাম ব্লু ল্যাগুন, যেটির অবস্থান রিকজানিসের মৎসজীবীদের শহর গ্রিন্ডভিকের কাছেই। দুর্যোগ শুরু হওয়ার অনেক আগেই অবশ্য শহর থেকে প্রায় ৪ হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইতোমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অগ্ন্যুৎপাতের বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও। আইসল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাৎ ও লাভার উদ্গীরণ শুরু হওয়ার আগে অন্তত এক ঘণ্টা ভূমিকম্প হয়েছে।

কেন্দ্রস্থল পরিদর্শন করতে আবহাওয়া দপ্তরের অনুরোধে একটি হেলিকপ্টার পাঠিয়েছিল আইসল্যান্ডের কোস্টগার্ড বাহিনী। আরোহীরা পরিদর্শন শেষে জানিয়েছেন, ব্লু ল্যাগুন এলাকার কাছে ৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের একটি ফাটল থেকে লাভার উদ্গীরণ ঘটছে এবং প্রতি সেকেন্টে ১০০ থেকে ২০০ কিউবিক মিটার লাভা উঠছে সেই ফাটল থেকে।

কোস্টগার্ডের হেলিকপ্টার আরোহীদের অন্যতম সদস্য এবং আইসল্যান্ডের বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগের জেষ্ঠ্য কর্মকর্তা ভিদির রেয়েনিসন দেশটির টেলিভিশন চ্যানেল আরইউভিকে বলেন, ‘সেখানে বিস্ফোরণ হচ্ছে এবং লাভা বেশ ওপরে উঠছে। এটা বেশ শক্তিশালী অগ্নুৎপাত।’

রাজধানী রিকজাভিক থেকেও অগ্ন্যুৎপাৎ দেখা যাচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ক্যাটরিন জ্যাকসডটির জানিয়েছেন, এই দুর্যোগ থেকে সাধারণ লোকজনকে রক্ষা করতে যা যা পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন, সেসবের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি রয়েছে সরকারের।

দেশটির প্রেসিডেন্ট গুডনি জোহানেসন জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে সরকারের প্রধান লক্ষ্য সাধারণ লোকজনকে রক্ষা করা ও লাভার স্রোত থেকে ভবন ও অবকাঠামো যতদূর সম্ভব রক্ষা করা।

বিবিসি



সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আরও খবর...