1. info.nagorikvabna@gmail.com : Rifan Ahmed : Rifan Ahmed
  2. emranhossain9555@gmail.com : Emran Hossain : Emran Hossain
  3. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul Islam : Mohaiminul Islam
  4. ischowdhury90@gmail.com : Riazul Islam : Riazul Islam
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
দেশব্যাপী প্রচার ও প্রসারের লক্ষে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান info.nagorikvabna@gmail.com অথবা হটলাইন 09602111973-এ ফোন করুন।

শহীদ নূর হোসেন দিবসে কয়েকশত নেতাকর্মী নিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী মটর চালক লীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি

  • সর্বশেষ পরিমার্জন : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১১৪ বার পড়া হয়েছে

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

শহীদ নূর হোসেন দিবস উপলক্ষে সোনারগাঁ থেকে সভাপতি আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে কয়েকশত নেতা কর্মী নিয়ে রাজধানীর গুলিস্তানে নূর হোসেন স্কয়ারে পুস্পস্তব অর্পণের মাধ্যমে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী মটর চালক লীগ।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী মটর চালক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান জজের নেতৃত্বে আজ ১০ নভেম্বর সকাল সাড়ে আটটায় চালক লীগের শতশত নেতা-কর্মী সঙ্গে নিয়ে এই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এসময় নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী মটর চালক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান জজ বলেন, নূর হোসেনের আত্মত্যাগে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন আরো বেগবান ও অপ্রতিরোধ্য রূপ লাভ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯০ এর ৬ ডিসেম্বর স্বৈরাচারের পতন ঘটে। নূর হোসেনসহ অসংখ্য শহীদের আত্মত্যাগের পথ বেয়ে স্বৈরাচার এরশাদের পতনকে ত্বরানিত্ব করে দেশে ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা পায়।

তার বীরোচিত জীবন দানের ফলে নূর হোসেন সেই সংগ্রামের প্রতীক হিসেবে মর্যাদা লাভ করেন। এরপর থেকে নূর হোসেনের বুকে-পিঠে লেখা সেই শ্লোগান ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক’ হয়ে ওঠে আন্দোলনের প্রতীক। শহীদ নূর হোসেনের ৩৩তম মৃত্যুদিনে তাঁর প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য যে, ১৯৮৭ সালের ১০ই নভেম্বর তৎকালীন স্বৈরাচারী রাষ্ট্রপতি লেফটেন্যান্ট জেনারেল এরশাদ সরকারের পদত্যাগ এবং নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে সংসদ নির্বাচনের দাবিতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৫ দলীয় জোটের ঢাকা অবরোধ কর্মসূচী পালিত হয়। এদিন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে সংগঠিত গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলন চলাকালে পুলিশের গুলিতে জিপিওর সামনে জিরো পয়েন্টে (বর্তমান নূর হোসেন স্কয়ার) নূর হোসেন গুলিবিদ্ধ হয়ে শহীদ হন। 

এসময় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপদেষ্টমন্ডলীর সদস্য মোঃ জালাল, মোঃ শাজজাহান মোল্লা, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাবেক সহ-সম্পাদক রাইসুল ইসলাম রাসেল, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাবেক কার্যকরী সদস্য মেহদী হাসান মামুন ও মোঃ জাহাঙ্গীর খান। অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, নব গঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী মটর চালক লীগের সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান জজ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউর রহমান আতা সহ জেলা কমিটির বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ এবং সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী মটর চালক লীগের সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন সহ শতাধিক নেতাকর্মী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

খুঁজুন

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৬০,৭১৯,৯৩৬
সুস্থ
৪২,০৩০,২৩৪
মৃত্যু
১,৪২৬,৮২৩