1. info.nagorikvabna@gmail.com : Rifan Ahmed : Rifan Ahmed
  2. emranhossain9555@gmail.com : Emran Hossain : Emran Hossain
  3. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul Islam : Mohaiminul Islam
  4. ischowdhury90@gmail.com : Riazul Islam : Riazul Islam
সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৫১ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
দেশব্যাপী প্রচার ও প্রসারের লক্ষে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা সিভি পাঠান info.nagorikvabna@gmail.com অথবা হটলাইন 09602111973-এ ফোন করুন।

কাঁচপুরে যাত্রীদের ৯৯৯ এর কলে ধর্ষণের চেষ্টাকারী বাসের হেলপার আটক

  • সর্বশেষ পরিমার্জন : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

 

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ

যৌন হরনারীর অভিযোগে মো.মিলন মিয়া (৩২) নামের একটি যাত্রীবাহি বাসের এক হেলপারকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর এলাকা থেকে আটক করেছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে ৯৯৯ ফোন পেয়ে সোনারগাঁ থানা পুলিশ বাসসহ হেলপারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় শিশুটির মা উল্লেখ করেন, বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার এক শিশু মেয়ে (১১) ও এক ছেলেকে নিয়ে ভোর ৫টার দিকে ঢাকা মেট্রো ব–১৪-১৩৮৬ নাম্বারের একটি যাত্রীবাহি বাসে হাজীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দ্যেশে রওয়ানা দেন। বাসে উঠে তিনি তার ছেলেকে নিয়ে একটি সিটে ও মেয়েকে পাশের আরেকটি সিটে বসতে দেন। পথিমেধ্যে তিনি তার ছেলে ও পাশের সিটে বসা তার মেয়েও ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল ৯টার দিকে কাঁচপুর মেট্রো সিএনজি পাম্পের সামনে এসে বাসটি পৌচ্ছালে যাত্রীদের চেঁচামেচিতে তার ঘুম ভেঙ্গে যায়। ঘুম ভেঙ্গে শুনতে পান বাসের হেলপার মিলন মিয়া তার ঘুমন্ত মেয়ের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে নিজে হস্তমৌথন করে বীর্য ফেলে মেয়ের শরীরের জামার পিছনের অংশ ভিজিয়ে দিয়ে যৌন হয়রানী করছে।

এ সময় যাত্রীদের চেষ্টায় ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিলে সোনারগাঁ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে হেলপার মিলন ও বাসটিকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

খুঁজুন

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৫৯,১৬৯,১১৪
সুস্থ
৪০,৯২৯,৩১৫
মৃত্যু
১,৩৯৬,৪৬৭